১৪ দলের সমন্বয়ক ও মুখপাত্র হলেন আমির হোসেন আমু

0

নিজস্ব প্রতিবেদক,

১৪ দলীয় জোটের সমন্বয়ক ও মুখপাত্রের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমির হোসেন আমুকে। তিনি সদ্যপ্রয়াত আওয়ামী লীগ সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের স্থলাভিষিক্ত হলেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের গণমাধ্যমকে এই তথ্য জানিয়েছেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ১৪ দলের শরিক দলসমূহের নেতাদের সর্বসম্মতিক্রমে আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমির হোসেন আমুকে ১৪ দলের সমন্বয়ক ও মুখপাত্রের দায়িত্ব দিয়েছেন। আমির হোসেন আমু তার দীর্ঘ রাজনৈতিক অভিজ্ঞতা, দক্ষতা ও প্রজ্ঞা দিয়ে ১৪ দলের সমন্বয়কের দায়িত্ব পালনে যথাযথ ভূমিকা পালন করবেন বলে নেত্রী আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।

বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোট সরকারের আমলে ২০০৫ সালের ১৫ জুলাই তৎকালীন বিরোধী দল আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে ২৩ দফার ভিত্তিতে বাম প্রগতিশীল জোট ১১ দল, আওয়ামী লীগ, জাসদ ও ন্যাপ মিলে ১৪ দলীয় জোটের আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়। এর আগে থেকে রাজপথে জোট সরকারবিরোধী যুগপৎ আন্দোলনে সক্রিয় ছিল এসব দল। শুরুতে এই জোটের সমন্বয়ক ছিলেন আওয়ামী লীগের তৎকালীন সাধারণ সম্পাদক প্রয়াত আব্দুল জলিল।

২০০৮ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট ক্ষমতায় এলে ১৪ দলের সমন্বয়কের দায়িত্ব পান দলটির প্রবীণ নেত্রী সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী। তিনি কয়েকটি বৈঠকও করেন। পরে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে মুখপাত্রের দায়িত্ব পান মোহাম্মদ নাসিম।

করোনাভাইরাস ও ব্রেইন স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম এমপি গত ১৩ জুন মারা যান।

অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তির আগ পর্যন্ত জোটের মুখপাত্র হিসেবে মোহাম্মদ নাসিমই ১৪ দলের বৈঠক আয়োজনসহ বক্তৃতা-বিবৃতি দিয়ে আসছিলেন। করোনা সংকট শুরু হওয়ায় পর কর্মহীন মানুষের মধ্যে ১৪ দলের পক্ষে স্বল্পপরিসরে যে ত্রাণ কার্যক্রম চলছিল- সেটাও চলছিল নাসিমের মাধ্যমে। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর আয়োজনসহ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সময় সময় জোটের সর্বশেষ অবস্থানও জানিয়ে আসছিলেন তিনি। তবে নাসিমের মৃত্যুর পর থেকে জোটের এসব কার্যক্রম কার্যত বন্ধ রয়েছে। আর জোটের সমন্বয়ক সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী দীর্ঘদিন অসুস্থ থাকায় অনেকটা নিষ্ক্রিয় আছেন তিনি।

%d bloggers like this: