হুতি বিদ্রোহীদের সন্ত্রাসী তালিকা থেকে বাদ দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের সন্ত্রাসী তালিকা থেকে বাদ দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাইডেন প্রশাসন। আল জাজিরার খবরে বলা হয়, মানবিক সংকট দূর করার অংশ হিসেবে ট্রাম্পের শেষ মুহূর্তে নেয়ার সিদ্ধান্ত পাল্টানো হাচ্ছে।

শুক্রবার (৫ ফেব্রুয়ারি) মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের এক কর্মকর্তা এই তথ্য নিশ্চিত করেন। সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন ইয়েমেনে সামরিক অভিযানে যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থন বন্ধের ঘোষণার একদিন পর এমন তথ্য আসলো। মার্কিন কর্মকর্তা বলেন, ট্রাম্প প্রশাসনের শেষ মুহুর্তে নেয়া পদক্ষেপের ফলে দেশটিতে সৃষ্ট মানবিক সংকটের কারণে এই সিন্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

এক বিবৃতিতে দেশটির সিনেটের বৈদেশিক সম্পর্ক বিষয়ক কমিটির সদস্য ক্রিস মারফি প্রেসিডেন্ট বাইডনের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন। তিনি বলেন, হুতিকে সন্ত্রাসী সংগঠন আখ্যা দেওয়ার ফলে ইয়েমেনে খাদ্যসহ জরুরি সহায়তা দেয়া বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। একইসঙ্গে এটি কার্যকর রাজনৈতিক সমঝোতার পথকেও ব্ন্ধ করে দিয়েছিল।

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তার প্রেসিডেন্সি মেয়ার শেষ হওয়ার কয়েকদিন আগে ইয়েমেনের হুতিকে ‘বিদেশি সন্ত্রাসী সংগঠন’ হিসেবে তালিকাভুক্ত করেন। এই ঘোষণার পর ইয়েমেনকে বিশ্বের বৃহত্তম মানবিক সংকট হিসাবে বর্ণনা করেছিল জাতিসংঘ। সেখানে ২ কোটি ৪০ লাখ লোকের মধ্যে ৮০ ভাগেরই সহায়তার প্রয়োজন। এই সিদ্ধান্ত দেশটির কয়েক কোটি মানুষকে চরম দুর্ভিক্ষের দিকে ঠেলে দিবে বলেও ট্রাম্প প্রশাসনকে সতর্ক করেছিল জাতিসংঘ।

২০১৫ সালে ইরান সমর্থিত হুথিদের দমনে ইয়েমেনে প্রবেশ করে সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট। এখানে প্রকাশ্যে ইয়েমেনের সাথে যুদ্ধ হলেও আদতে সেটি ইরান-সৌদির ছায়াযুদ্ধ হিসেবে মনে করা হয়। এতে বরবরই পূর্ণ সমর্থন ছিল ট্রাম্প প্রশাসনের।

%d bloggers like this: