হালুয়াঘাট বৈদেশিক কর্মসংস্থানের জন্য দক্ষতা ও সচেতনতা’ শীর্ষক প্রচার

0

মোঃরফিকুল্লাহ চৌধুরী(মানিক):হালুয়াঘাট প্রতিনিধিঃ

‘জেনে বুঝে বিদেশ যাই, অর্থ-সম্মান দুটোই পাই’ এই শ্লোগানকে সামনে নিয়ে সোমবার সকাল সাড়ে ১১টায় ময়মনসিংহ হালুয়াঘাট উপজেলায় “বৈদেশিক কর্মসংস্থানের জন্য দক্ষতা ও সচেতনতা ’ শীর্ষক প্রচার, প্রেসব্রিফিং ও সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রনালয়ের সার্বিক তত্বাবধানে হালুয়াঘাট উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ রেজাউল করিম সভাপতিত্ব করেন। উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সহকারী কমিশনার ভূমি তানভীর আহমেদ, ময়মনসিংহ টেকনিক্যাল ট্রেইনিং সেন্টার এর অধ্যক্ষ ইঞ্জিনিয়ার গিয়াস উদ্দিন আহমেদ, হালুয়াঘাট থানা ওসি (তদন্ত)মোঃআবু বক্কর সিদ্দিক হালুয়াঘাট উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা কবিরুল ইসলাম বেগ, কৃষি কর্মকর্তা মাসুদুর রহমান, সমবায় কর্মকর্তা সৈয়দ কামরুল হুদা, মৎস্য কর্মকর্তা ফরিদুল ইসলাম সহ বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, হালুয়াঘাট প্রেসক্লাবের সাংবাদিকবৃন্দ এবং বিভিন্ন স্কুলের প্রধান শিক্ষক, রাজনৈতিক ও সামাজিক ব্যক্তিবর্গ ও নানানবিধ শ্রেণীপেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে নিরাপদ, সুশৃঙ্খল, নিয়মিত ও দায়িত্বশীল অভিবাসন নিশ্চিত করার জন্য জনসচেতনতা সৃজনের লক্ষ্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃরেজাউল করিম প্রেসব্রিফিং করেন। পরে সেমিনারে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন ময়মনসিংহ টেকনিক্যাল ট্রেইনিং সেন্টার এর অধ্যক্ষ ইঞ্জিনিয়ার গিয়াস উদ্দিন আহমেদ,
প্রেসব্রিফিং ও সেমিনারে জানানো হয়, বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৮ সালে নির্বাচনী ইশতেহারে ঘোষণা করেছিলেন, “নির্বাচনে বিজয়ী হলে আগামী ৫ বছরে ১ কোটি ২৮ লক্ষ কর্মসংস্থান সৃজনের পরিকল্পনা আমাদের আছে এবং প্রতি উপজেলা হতে গড়ে ১০০০ জন যুব বা যুব মহিলাকে বিদেশে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হবে”। প্রধানমন্ত্রীর নিদের্শনা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় হতে কিছু উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে বলেও জানানো হয়। সেমিনারে জানানো হয়, ১৯৭৬ সাল হতে বাংলাদেশ বিদেশে জনশক্তি প্রেরণ শুরু করেছে। বর্তমানে ১৭৩টি দেশে ১ কোটি ২০ লক্ষের অধিক বাংলাদেশী কর্মী বিভিন্ন কাজে নিয়োজিত আছেন। তারা বছরে গড়ে ১৬ বিলিয়নের অধিক মার্কিন ডলার রেমিটেন্স দেশে প্রেরণ করে থাকেন যা দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিক পালন করছে। এছাড়া বর্তমানে বছরে প্রায় ৭ লক্ষ অভিবাসীর কর্মসংস্থান প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে বিদেশে হয়ে থাকে। তাই, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্বাচনী ইশতেহারের ঘোষণা আমাদের জন্য এক আলোকবর্তিকা।
প্রেসব্রিফিং ও সেমিনারে আরো জানানো হয়, বর্তমানে বাংলাদেশের নতুন শ্রম বাজার। সেখানে কর্মী প্রেরণ শুরু হয়েছে। ইউরোপের কিছু দেশে নতুন শ্রম বাজার খোলার লক্ষ্যে কাজ চলছে। নবসৃষ্ট শ্রম বাজারসমূহ নতুন সুযোগ সৃষ্টি করেছে। কিন্তু বিদেশের শ্রম বাজারে পূর্বের মতো অদক্ষ কর্মীর চাহিদা তেমন নেই। এখন চাহিদা আছে দক্ষ কর্মীর। অসত্য তথ্যের ভিত্তিতে দালালের মাধ্যমে ফ্রি ভিসা বা ট্রেডিং ভিসার নামে বিদেশে গিয়ে কাজ পাওয়ার দিন শেষ হয়ে গেছে। তাই, দালালের কথায় কান না দিয়ে টিটিসি বা উপযুক্ত প্রশিক্ষণ কেন্দ্র হতে প্রশিক্ষণ নিয়ে দক্ষ হয়ে বিদেশ যাওয়ার জন্য বিদেশ গমনেচ্ছু যুব ও যুব মহিলাদের অনুরোধ জানোনো হয়। এতে অধিক বেতন-ভাতা ও নিরাপত্তা নিশ্চিত হবে।
প্রেসব্রিফিংয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ রেজাউল করিম আরো উল্লেখ করেন, বৈধ প্রবাসীদের সন্তানের জন্য দেশে শিক্ষা বৃত্তি চালু রয়েছে। প্রবাসে অসুস্থ হলে বৈধভাবে গমনকারী ১জন কর্মীকে চিকিৎসা বাবদ সরকার ১ লক্ষ টাকা অনুদান প্রদান করে থাকে। প্রবাসে মৃত্যুবরণকারী কর্মীর লাশ পরিবহন খরচ ও দেশে সৎকারের জন্য নগদ ৩৫ হাজার টাকা এবং মৃত কর্মীর ওয়ারীশকে ৩ লক্ষ টাকা পর্যন্ত মন্ত্রণালয় হতে সাহায্য দেয়া হচ্ছে। সম্প্রতি প্রবাসীদের সুরক্ষার জন্য বীমা পলিসি চালু করা হয়েছে। তাছাড়া বিদেশ গমনেচ্ছু কর্মীকে দেশ ব্যাপি প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের ৬৩টি শাখা অফিস থেকে স্বল্প সুদে ও জামানত বিহীন ঋণ প্রদান করা হয়। পরিশেষে, বিদেশে গিয়ে কেউ যাতে প্রতারিত না হয়; সে জন্য সকলকে সজাগ থেকে জেনেশুনে বিদেশ যেতে এবং নিরাপদ অভিবাসন ও প্রবাসী কর্মীদের কল্যাণ নিশ্চিতকল্পে সকলের সহযোগিতা কামনা করা হয় সেমিনারে।

%d bloggers like this: