ঢাকা ৩১°সে ১৪ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

নিমিষে ক্লান্তি দূর করতে খাবেন যেসব খাবার

স্বাস্থ্য ডেস্ক :

আপনি অনেক ব্যস্ত? দম ফেলানোর ফুরসত নেই? সারাদিন ছুটতে হয়, থাকতে হয় কাজে? এভাবে ছুটতে ছুটতে শরীর ক্লান্ত হয়ে পড়বে এমনটাই স্বাভাবিক। তবে সুস্থভাবে বাঁচতে এর থেকে মুক্তি পাওয়া অত্যন্ত আবশ্যক। চিকিৎসকেরা জানাচ্ছেন, আধুনিক খাদ্যাভ্যাস, জীবনযাপন আমাদের খুব তাড়াতাড়ি শারীরিক ও মানসিকভাবে ক্লান্ত করে দিচ্ছে।

জানেন কি, জীবনে খুব সূক্ষ্ম পরিবর্তনও নিমেষে আপনার এনার্জির মাত্রাটিকে তলানিতে এনে দিতে পারে। ফলে ঠিক কী কারণে ক্লান্তির মাত্রা দিন দিন বাড়ছে তা সঠিকভাবে নির্ধারণ করা যেমন আবশ্যক, তেমনই তা কমাতে কোন খাবার খেতে হবে সেটা জানাও প্রয়োজন। জেনে নিন, কী খেলে নিমেষে মুক্তি পেতে পারবেন ক্লান্তি থেকে।

কলা: কলায় রয়েছে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম এবং নানা ধরনের ভিটামিন ও ফ্যাটি অ্যাসিড যা এক মুহূর্তে ক্লান্তিকে দূরে সরিয়ে রাখতে পারে।

ওটস: ওটসে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার ও কার্বোহাইড্রেট যা শরীরকে এনার্জি জোগায়। এছাড়া রয়েছে প্রোটিন, ম্যাঙ্গানিজ, ফসফরাস ও ভিটামিন বি১ যা এনার্জির মাত্রাকে বাড়িয়ে তোলে।

তরমুজ: খুব তাড়াতাড়ি এনার্জিকে বাড়িয়ে তোলে তরমুজ। এর প্রায় পুরোটাই পানি ও সঙ্গে রয়েছে ইলেকট্রোলাইটস। শরীরকে আর্দ্র রেখে এনার্জিকে ফিরিয়ে আনে তরমুজ।

দই: দইয়ে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন ও কার্বোহাইড্রেট। দইয়ে থাকা এসব উপাদান ক্লান্তির বিরুদ্ধে লড়াই করে। একইসঙ্গে এটি হজম ক্ষমতাকেও বাড়িয়ে তোলে।

আখরোট: ক্লান্তি কমাতে আখরোট উপযোগী ভূমিকা গ্রহণ করে। এতে রয়েছে প্রোটিন, ভিটামিন ও ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড যা ক্লান্তির বিরুদ্ধে লড়তে সাহায্য করে।

গ্রিন টি: এক কাপ গ্রিন টি ক্লান্তি ভাবকে নিমেষে কমিয়ে দিতে পারে। মানসিক ক্লান্তিকে কমাতে বিশেষভাবে সাহায্য করে এই ধরনের চা।




আপনার মতামত লিখুন :