সিলেটে পুলিশ-শ্রমিকদের সংঘর্ষ !! চৌহাট্ট রণক্ষেত্র

0

আবুল কাশেম রুমন,সিলেট:

সিলেট চৌহাট্টা-আম্বরখান সড়কে উন্নয়ন সংস্কার কাজে চৌহাট্টায় শ্রমিকদের বাধা। সরেজমিন দেখাযায় দরগাহ এলাকায় ফুটপাত ও সড়কের আশ পাশের অধিকাংশ জায়গা অবৈধ ভাবে মাইক্রোবাস ও প্রাইভেটকারে স্ট্যান্ড তৈরি করে রাখায় সিটি কর্পোরেশনের উন্নয়ন কাজে বাধা গ্রস্থ হচ্ছে। হকার ও অবৈধ স্ট্যান্ড মুক্ত করতে সিলেট সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী প্রশাসন সহ কাউন্সিলর সচেতন মহল নিয়ে মাঠে নামলে ১৭ ফেব্রুয়ারি শ্রমিক পুলিশ ও সিটি মেয়র, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে সংঘর্ষে চৌহাট্টা এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়্।

একপর্যায়ে ত্রিমুখে সংঘর্ষ বেঁধে যায়। সংঘর্ষে কাউন্সিলর-পুলিশ সদস্যসহ অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছেন। আধঘন্টা পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে পুলিশ। সংঘর্ষ থামাতে পুলিশকে ১৬ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়তে হয়। ঘটনাস্থল থেকে আগ্নেয়াস্ত্রসহ ফয়সল আহমদ ফাহাদ (৩৮) নামে এক পরিবহন শ্রমিককে আটক করা হয়েছে। সিলেট সিটি করপোরেশন সূত্রে জানা যায়, চৌহাট্টা- দরগাহ এলাকার ফুটপাত ও সড়কের অনেকাংশ দখল করে অনেক দিন ধরেই অবৈধ স্ট্যান্ড গড়ে তুলেছে মাইক্রোবাস ও প্রাইভেটকার শ্রমিকরা।

প্রতিদিন এখানে শতাধিক গাড়ি পার্কিং করা থাকে। চারদিন আগে এই অবৈধ স্ট্যান্ড উচ্ছেদে যায় সিলেট সিটি করপোরেশন। মেয়রের নেতৃত্বে এই অভিযানে বাধা দেয় পরিবহন শ্রমিকরা। পরে তাদের তিনদনের সময় বেঁধে দিয়ে এই সময়ের মধ্যে ফুটপাত ও সড়ক ছেড়ে দেওয়ার নির্দেশ দেন মেয়র। সিটি করপোরেশনের জনসংযোগ শাখা জানায়, বুধবার সকালে চৌহাট্টা এলাকায় সড়কের উন্নয়ন কাজ বন্ধ করে দিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে পরিবহন শ্রমিকরা।

এ খবর পেয়ে দুপুরে কাউন্সিলর, ম্যাজিস্ট্রেট ও সংশ্লিস্ট কর্মকর্তাদের নিয়ে উন্নয়ন কাজ পরিদর্শনে যান মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। এসময় তিনি দেখতে পান পরিবহন শ্রমিকরা তখনও সড়ক ও ফুটপাত দখল করে গাড়ি পার্কিং করে রেখেছেন। এসময় মেয়রসহ সিসিকের কর্মকর্তারা সড়ক সম্প্রসারণের কাজ শুরু করতে চাইলে তারা বাধা দেন।

এনিয়ে আলাপচারিতার একপর্যায়ে সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তাদের উপর হামলা চালায় পরিবহন শ্রমিকরা।সিলেট কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম আবু ফরহাদ বলেন, পুলিশ আধঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এসময় ১৬ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোঁড়া হয়। তিনি বলেন, ঘটনাস্থল থেকে আগ্নেয়াস্ত্রসহ ফয়সল আহমদ ফাহাদ (৩৮) নামে এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে।

সিলেট মহানগর পুলিশের উপ কমিশনার (ট্রাফিক) ফয়সল মাহমুদ বলেন, সরকারি রাস্তা দখল করে যানবাহন রাখা হচ্ছে দীর্ঘ দিন থেকে। কিন্তু সম্প্রতি সিসিকের উন্নয়ন কাজ শুরু হওয়ায় চৌহাট্টাস্থ এলাকার অবৈধ পরিবহন স্ট্যান্ড সরানোর জন্য বলা হলেও শ্রমিকরা যানবাহন না সরিয়ে বিভিন্ন দাবি জানিয়ে আন্দোলন শুরু করে। এক পর্যায়ে সিসিকের কর্মী ও পরিবহন শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

%d bloggers like this: