সারাদেশে ওসিরা ব্যস্ত জঙ্গি দমনে সেখানে ত্রিশালের ওসি মনির আছেন ভ্রমনে

0

ষ্টাফ রিপোর্টার:

সারাদেশে রেড এলার্ট পাওয়ার পর ওসিরা ব্যস্ত যেখানে জঙ্গী দমনে । সেখানে ময়মনসিংহের ত্রিশাল থানার ওসি মনিরুজ্জামান মনির ব্যস্ত ভ্রমন প্রমোদে । সারাদেশে চাঞ্চল্যসৃষ্টিকারী এই ত্রিশালেই ঘটে যায় লোমহর্ষক জঙ্গী ছিনতাইয়ের ঘটনা ।ওসির এই উদাসীনতায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন সরকারি দল আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীসহ উপজেলাবাসী । অভিযোগ রয়েছে, এ থানায় ১২ শতাধিক ওয়ারেন্টভূক্ত পলাতক আসামী ঘুরে বেড়াচ্ছে প্রকাশ্যেই । এতে ভীত ও আতঙ্কিত হয়ে উঠেছেন মামলার বাদীসহ সাধারণ মানুষ ।

শুধু প্রকশ্যেই নয়, থানা কার্যালয়েও দালালি ও তদবির করে বেড়াচ্ছে এই ওয়ারেন্টভূক্ত আসামীদের কেউ কেউ । তন্মধ্যে আব্দুল মবিন রঞ্জু একজন । চারদলীয় জোটের সমর্থক এই রঞ্জুর বিরুদ্ধে রয়েছে, জঙ্গীদের অর্থয্ােগান, মদদ ও সহযোগীতা করার অভিযোগ। এমনকি পলাতক আসামীদের কাছেও পুলিশের অনেক তথ্য ফাঁস করে দিচ্ছেন। অভিযোগ আছে, গত ২১ মার্চ থেকে ২৪ মার্চ পর্যন্ত ওসি মনিরুজ্জামান মনির ছিলেন , কক্সবাজারের সাগর সৈকতে আনন্দ ভ্রমণে। তার কোন আগ্রহও নেই পলাতক আসামীদের গ্রেফতারে ।

সারাদেশের পুলিশ কর্মকর্তারা যেখানে জঙ্গিদমন করতে গিয়ে জীবন বাজি রেখে প্রাণ পর্যন্ত দিয়ে দিচ্ছেন , সেখানে এই ওসি নিজেই অপরাধমূল কার্যকলাপে যুক্ত হয়ে অপরাধীদের সুযোগ করে দিচ্ছেন । অভিযোগ এই ওসি কোটি কোটি টাকা নানাভাবে নিরীহ লোকজনদের হয়রানির ফাঁদে ফেলে ঘুষ আদায়ের মাধ্যমে আত্মসাত করেছে।

এছাড়াও তার বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ উত্থাপন করে তদন্তের মাধ্যমে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি ক্ষোদ উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতাদেরও । ইতিমধ্যে তার বিরুদ্ধে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়সহ সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভিন শাখায় লিখিত অভিযোগও দায়ের করা হয়েছে ।এ ব্যাপারে ওসি মনিরুজ্জামান মনির সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি ।
সারাদেশে রেড এলার্ট পাওয়ার পর ওসিরা ব্যস্ত যেখানে জঙ্গী দমনে । সেখানে ময়মনসিংহের ত্রিশাল থানার ওসি মনিরুজ্জামান মনির ব্যস্ত ভ্রমন প্রমোদে । সারাদেশে চাঞ্চল্যসৃষ্টিকারী এই ত্রিশালেই ঘটে যায় লোমহর্ষক জঙ্গী ছিনতাইয়ের ঘটনা ।ওসির এই উদাসীনতায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন সরকারি দল আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীসহ উপজেলাবাসী ।

অভিযোগ রয়েছে, এ থানায় ১২ শতাধিক ওয়ারেন্টভূক্ত পলাতক আসামী  ঘুরে বেড়াচ্ছে প্রকাশ্যেই । এতে ভীত ও আতঙ্কিত হয়ে উঠেছেন মামলার বাদীসহ সাধারণ মানুষ । শুধু প্রকশ্যেই নয়, থানা কার্যালয়েও দালালি ও তদবির করে বেড়াচ্ছে এই ওয়ারেন্টভূক্ত আসামীদের কেউ কেউ । তন্মধ্যে আব্দুল মবিন রঞ্জু একজন । চারদলীয় জোটের সমর্থক এই রঞ্জুর বিরুদ্ধে রয়েছে,  জঙ্গীদের অর্থয্ােগান, মদদ ও সহযোগীতা করার  অভিযোগ। এমনকি পলাতক আসামীদের কাছেও পুলিশের অনেক তথ্য ফাঁস করে দিচ্ছেন।

অভিযোগ আছে, গত ২১ মার্চ থেকে ২৪ মার্চ পর্যন্ত ওসি মনিরুজ্জামান মনির  ছিলেন , কক্সবাজারের সাগর সৈকতে আনন্দ ভ্রমণে। তার কোন আগ্রহও নেই পলাতক আসামীদের গ্রেফতারে । সারাদেশের পুলিশ কর্মকর্তারা যেখানে জঙ্গিদমন করতে গিয়ে জীবন বাজি রেখে প্রাণ পর্যন্ত দিয়ে দিচ্ছেন , সেখানে এই ওসি নিজেই অপরাধমূল কার্যকলাপে যুক্ত হয়ে অপরাধীদের সুযোগ করে দিচ্ছেন । অভিযোগ এই ওসি কোটি কোটি টাকা নানাভাবে নিরীহ লোকজনদের হয়রানির ফাঁদে ফেলে ঘুষ আদায়ের মাধ্যমে আতœসাত করেছে। এছাড়াও তার বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ উত্থাপন করে তদন্তের মাধ্যমে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি ক্ষোদ উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতাদেরও । ইতিমধ্যে তার বিরুদ্ধে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়সহ সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভিন শাখায় লিখিত অভিযোগও দায়ের করা হয়েছে ।এ ব্যাপারে ওসি মনিরুজ্জামান মনির  সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি ।

সূত্র: অপরাধ সংবাদ

%d bloggers like this: