সরকারী প্রজ্ঞাপন মেনে পতাকা উত্তোলন করা হয়নি ঈশ্বরগঞ্জের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহে

0

বিশেষ প্রতিবেদকঃ

রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে মন্ত্রি পরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম এর স্বাক্ষরিত ১৬ নভেম্বরে একটি প্রজ্ঞাপন জারী হয়। এতে বলা হয়, বাংলাদেশের অকৃত্রিম বন্ধু বাহরাইনের প্রধানমন্ত্রি শেখ খলিফা বীন সালমান আল খলিফার ইন্তেকালে আগামী ১৭ নভেম্বর মঙ্গলবার বাংলাদেশে রাষ্ট্রিয়ভাবে এক দিনের শোক পালন করা হবে। এ উপলক্ষে ১৭ নভেম্বর মঙ্গলবার সারা দেশের সরকারী আধাসরকারী ও স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠান ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ সকল সরকারী বেসরকারী ভবন এবং বিদেশস্থ বাংলাদেশ মিশনসমূহে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত থাকবে। কিন্তু ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার কয়েকটি ইউনিয়ন ঘুড়ে পাওয়া যায়নি তার বাস্তবতা।

আঠারোবাড়ি ইউনিয়ন এর সারতি হুসাইনিয়া দাখিল মাদ্রাসায় জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হলেও অর্ধনমিত রাখা হয়নি। এছাড়া পানান ইসলামীয়া ফাজিল (ডিগ্রি মাদ্রাসা), জাটিয়া গাফুরীয়া দাখিল মাদ্রাসা, জাটিয়া উচ্চ বিদ্যালয়, পিতাম্বর পাড়া হুসাইনিয়া বহুমুখি ফাজিল ডিগ্রি মাদ্রাসা ও টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ, মল্লিকপুর লক্ষিগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়, ৪৭ নং জাটিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, পিতাম্বরপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৪০ নং হারুয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, মাঝিয়াকান্দি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলনেই করা হয়নি।

এ বিষয়ে প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আনার কলি নাজনীন দুর্নীতি বার্তাকে জানান, গতকাল সন্ধ্যার আগেই উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দ্বায়ীত্ব প্রাপ্তকে অবগত করা হয়েছে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখার জন্য। যদি কোন প্রতিষ্ঠানে তা অমান্য করে তাহলে সংশ্লিষ্ট দায়িত্বপ্রাপ্তের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেয়া হবে।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আশরাফুল ইসলামকে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসে পাওয়া যায়নি, এ সময় তার মোবাইল ফোনটিও বন্ধ ছিল।

ঈশ^রগঞ্জ উপজেলা নিবার্হী অফিসার জাকির হোসেন এ বিষয়ে দুর্নীতি বার্তাকে জানান, করোনা ভাইরাসের কারনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও অফিস খুলতে হবে। যদি কেউ না খুলে থাকে তাহলে স্ব-স্ব ডিপার্টমেন্টকে ব্যাবস্থা নেয়ার জন্য বলা হবে।

%d bloggers like this: