লাশ হয়ে দেশে ফেরার অপেক্ষায় বাহরাইন প্রবাসী সাইফুল

0

অনলাইন ডেস্ক:

প্রবাস জীবন যে কত কষ্টের তা একমাত্র ভুক্তভোগীরাই জানেন। জীবনে একটু ভালোভাবে ও উন্নত পরিবেশে বাঁচার জন্য ভিটেমাটি বিক্রি করে সাত সমুদ্র তেরো নদী পেরিয়ে আসতে হয় প্রবাসে। কেউ হাসি মুখে আর কেউ জেল খেটে কেউ আবার লাশ হয়ে দেশে ফিরে। কেউ পঙ্গু ও বিভিন্ন মারণব্যাধিতে আক্রান্ত হয়ে স্বদেশের মাটিতে যেতে হয়।

এরই এক উদাহরণ মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলার মেদেনীমহল গ্রামের মো. সাইফুল ইসলাম (৩৭)। দীর্ঘ ১৩ বছর যাবত বাহরাইনে আছেন তিনি। বৈধ ভিসা নিয়ে আসার পর মালিক (আরবাব) বৈধ কাগজপত্র দিতে অস্বীকৃত জানায় এবং মোটা অংকের টাকা দাবি করে। নিরুপায় হয়ে অবৈধভাবে খেয়ে না খেয়ে নতুন জীবন শুরু করেন বাহরাইনে।

ভাগ্যের কী পরিহাস চলতি বছরের জানুয়ারিতে গৃত নির্মাণ কাজে হঠাৎ তিন তালা থেকে ছিটকে নিচে পড়ে গেলে সাইফুল ইসলামের মেরুদণ্ডের হাড় ভেঙে যায়। পরে স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হলে তার বৈধ কোনো কাগজপত্র না থাকায় পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে জেলহাজতে নিয়ে যায়। জেলহাজতে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে বাহরাইন সালমানিয়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গত ২০ মার্চ রাতে তিনি চলে যান না ফেরার দেশে।

বর্তমানে সাইফুলের লাশ দেশে পাঠানো নিয়ে চলছে জটিলতা। কারণ এখানে অবৈধভাবে বসবাস করলে জেল ও মোটা অংকের জরিমানা গুণতে হয়। এ ব্যাপারে বাহরাইনে বাংলাদেশ দূতাবাস জানিয়েছে, নিহত সাইফুলের ভিসা সৌদি আরবের দাম্মামের। দীর্ঘ ১৩ বছর ধরে তিনি অবৈধভাবে বাহরাইনে বসবাস করছিলেন। এজন্য বেশ কিছু আইনি জটিলতা রয়েছে। দূতাবাস লাশ দেশে পাঠানোর জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। নিহত সাইফুলের লাশ সালমানিয়া হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে ।

%d bloggers like this: