ঢাকা ৩০°সে ১৫ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ভুলবশত’ বহিষ্কার, দুঃখ প্রকাশ করে প্রত্যাহার

নিজস্ব প্রতিবেদক :

স্থানীয় নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বরাবরের মতো এবারও মূল দল ও অঙ্গ সংগঠনের তৃণমূলের নেতাকর্মীদের বহিষ্কার করছে বিএনপি। তবে এবার এক সাবেক ছাত্রদল নেতাকে বহিষ্কার করে দুঃখ প্রকাশ করেছে দলটি। শুধু তাই নয়, একদিনের মধ্যেই প্রত্যাহার করে নেয়া হয়েছে ছাত্রদল নেতা মহিবুল হক টুকুলের বহিষ্কারাদেশ। বিএনপির সৌভাগ্যবান এই নেতা ময়মনসিংহ উত্তর জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন।

শুক্রবার দলটির সহ-দপ্তর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এই তথ্য জানানো হয়। বিবৃতিতে বলা হয়, মহিবুল হক টুকুলকে বিএনপির প্রাথমিক সদস্য পদসহ সকল পর্যায়ের পদ থেকে ভুলবশত বহিষ্কার করা হয়েছিল। নির্দেশক্রমে সেই বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করা হয়েছে।

তবে বৃহস্পতিবার একই আদেশে টুটুলসহ তিনজনকে বহিষ্কার করা হলেও বাকি দুজনের ব্যাপারে এখনো সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানা গেছে। তারা হলেন- ময়মনসিংহ উত্তর জেলার ফুলপুর পৌর বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক নুরে আলম সিদ্দিকি, সাবেক সদস্য মো. রাকিবুল হাসান সোহেল।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, ফুলপুর পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী এবং বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে কাজ করা নিয়ে বিরোধের জেরে এই বহিষ্কার করা হয়েছে। বিএনপি সামনের নির্বাচনে বর্তমান মেয়র আমিনুল হককে ফুলপুর পৌরসভায় মনোনয়ন দিয়েছে। এখানে বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন মো. রাকিবুল হাসান সোহেল।

বহিষ্কার হওয়া নেতাদের দাবি, বিদ্রোহী প্রার্থীর সঙ্গে সম্পর্ক আছে কেন্দ্রে এমন অপবাদ দিয়ে বহিষ্কার করানো হয়েছে। কিন্তু গত ২৭ জানুয়ারি প্রতীক বরাদ্দের পর থেকে ময়মনসিংহ বিভাগীয় বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এমরান সালেহ প্রিন্সের নির্দেশনায় তারা ধানের শীষের পক্ষে কাজ করছেন।

আদেশে বলা হয়, দলীয় শৃঙ্খলা পরিপন্থী কাজে লিপ্ত থাকার সুনির্দিষ্ট অভিযোগের প্রেক্ষিতে তাদের বহিষ্কার করা হলো। তবে বহিষ্কার হওয়া নেতা নুরে আলম সিদ্দিকি ঢাকাটাইমসকে বলেন, কি কারণে, কেন আমাদের বহিষ্কার করা হলো কিছুই জানি না। আমরা মনেপ্রাণে বিএনপি করি। বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার না হলে বিষয়টি নিয়ে হাইকমান্ডের সঙ্গে আমরা কথা বলব।




আপনার মতামত লিখুন :