ঢাকা ২৮.৯৯°সে ২৫শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ডোমারে পুকুর খননের সময় পেল কৃষ্ণ মূর্তি

নীলফামারী ডোমারে পুকুর খননের সময় প্রাচীন কালের ঐতিহ্য পিতলের তৈরি কৃষ্ণ মূর্তি পেলেন শামুন(২৫) নামে এক যুবক। গত শুক্রবার উপজেলার সোনারায় ইউনিয়নের চিকারহাট নাম স্থানে পুকুর খননের সময় এই মুর্তিটি পেয়েছেন। শামুন পশ্চিম সোনারায় টনবান্ধা এলাকার নুরুল হকের ছেলে।শামুন পেশায় একজন ট্রাক্টর টলি শ্রমিক।প্রতিদিনের ন্যায় ট্রাক্টর টলিতে মাটি কাটার কাজে যায় সে। শুক্রবার পুকুরের মাটি খননের সময় বেরিয়ে আসে কৃষ্ণ মূর্তিটি।
বিষয়টি শামুন এলাকার কয়েক জন ব্যক্তিকে জানান। তারা সবাই মিলে জামিরবাড়ী জয়ডাঙ্গা এলাকার বাশিকান্ত রায়কে দেখালে তিনি বলেন এটি প্রাচীন কালের ঐতিহ্য পিতলের তৈরি  কৃষ্ণ মূর্তি।  মূর্তিটি দেখতে সনাতন ধর্মের অনেক মানুষ ভীড় জমায়। অনেকেই মূর্তিটি কিনে নিতে চাইলেও দেননি শামুন। অর্থের লোভ শামুন কে হারাতে পারেনি। সে মূর্তিটি প্রশাসনের কাছে জমা দেবেন বলে এলাকাবাসীর  অনেকে জানান। এতে এলাকাবাসীর কাছে প্রশংসার দাবীদার হয়েছেন শামুন। গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় মূর্তি পাওয়ার বিষয়টি শামুন উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহিনা শবনমকে অবগত করেন।
রবিবার দুপুরে শামুন উপজেলার সোনারায় ইউনিয়নের আওয়ামী যুবলীগ সভাপতি মজিবুল ইসলাম ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী জাহিনুর ইসলামসহ এলাকার আরো কয়েকজনকে নিয়ে মূর্তিটি প্রশাসনের কাছে হস্তান্তর করেন।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহিনা শবনমের কাছে মূর্তির বিষয়টি জানতে চাইলে বলেন, মূর্তি পাওয়ার বিষয়টি আমাকে অবগত করেছে। আমি থানায় জমা দিতে বলেছি।
ডোমার থানা ওসি(তদন্ত) বিশ্বদেব রায় মূর্তিটি হস্থান্তরের  বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এলাকাবাসীর  খবরে ঘটনাস্থলে গেলে শামুন কৃষ্ণ মূর্তিটি নিজেই আমাদের কাছে হস্থান্তর করেন। মূর্তিটির ওজন সাড়ে ১৭ ভরি ৫আনা।




আপনার মতামত লিখুন :

এক ক্লিকে বিভাগের খবর