যেন রামোসের উপর ভর করেছে রোনালদো!

0

ফুটবল মাঠে খেলেন ডিফেন্ডার হিসেবে। প্রতিপক্ষ স্ট্রাইকারদের জন্য ‘সার্জিও রামোস’ নামটাই একটা ত্রাস। অথচ গত ৫ ম্যাচ ধরে যদি আপনি রিয়াল মাদ্রিদের খেলা না দেখে শুধু স্কোরকার্ডে চোখ বুলান এবং আপনি যদি সদ্য ফুটবল অনুসরণ করা একজন দর্শক হোন, যিনি রামোসের ইতিহাস সম্পর্কে কিছুই জানেন না- তাহলে নিশ্চিত ভাবেই আপনি ভাববেন রোনালদো বদলি এক গোল মেশিন জোগাড় করে ফেলেছে রিয়াল মাদ্রিদ। করোনা বিরতির পর ছয় ম্যাচ খেলা রিয়াল অধিনায়ক ৪ টি ম্যাচেই গোল করে দলকে রক্ষা করেছেন বিপদের হাত থেকে। যেন রামোসের উপর ভর করেছে রোনালদো!

আলফ্রেদো দে স্তেফানো স্টেডিয়ামে ম্যাচের বেশিরভাগ সময় আধিপত্য ছিল রিয়াল মাদ্রিদের। ৬৮ শতাংশ বলের দখলে ছিল জিদানের শিষ্যরা। কিন্তু গোলের মুখ দেখা হচ্ছিল না করিম বেনজেমা, লুকা মডরিচদের। শুরুর দিকে গেটাফেও দারুণ কিছু আক্রমণে রিয়ালের রক্ষণ কাঁপিয়েছে। অষ্টম মিনিটে গোল প্রায় পেয়েই যাচ্ছিল গেটাফে। গোলরক্ষক থিবো কোর্তোয়ার দারণ প্রচেষ্টায় রক্ষা পায় রিয়াল। ২৩ মিনিটে গেটাফের গোলরক্ষক ভিনিচিয়ুস জুনিয়রের শট ঠেকিয়ে দিলে গোলশূন্য প্রথমার্ধ শেষ হয়। দ্বিতীয়ার্ধের ৫৭ মিনিটে এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ তৈরি করেছিলেন মডরিচ।

কিন্তু তার দারুণ প্রচেষ্টা প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডারের গায়ে লেগে প্রতিহত হয়। ৬৬ মিনিটে মার্কো এসেনসিওর পাস সুবিধাজনক স্থানে পেয়েছিলেন করিম বেনজেমা। কিন্তু দুর্বল শটে হতাশা বাড়ান ফরাসি তারকা। অবশেষে গোলের অপেক্ষা ঘোচে ৭৯ মিনিটে। দানি কারবাহালকে গেটাফে ডিফেন্ডার ডি-বক্সে ফাউল করলে পেনাল্টি পায় রিয়াল। স্পট কিক থেকে আরেকটি গোল করেন সম্প্রতি ‘গোলমেশিন’ হয়ে পড়া সার্জিও রামোস। শেষ ১১ ম্যাচে রামোসের এটি ছয় নম্বর গোল।

চলতি লিগে রিয়াল ডিফেন্ডারের নয় নম্বর গোল এটি। রিয়ালের পক্ষে যা দ্বিতীয় সর্বোচ্চ! বাকি সময়ে আর কোনো গোল না হওয়ায় শেষ পর্যন্ত ১-০ গোলের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে রিয়াল মাদ্রিদ। নিজেদের মাঠে গেটাফের বিপক্ষে শুরুটা মোটেও ভালো হয়নি রিয়ালের। জিনেদিন জিদানের দল অবশ্য শেষ পর্যন্ত কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছেছে।

আর এই জয়ে শিরোপার আরও কাছে চলে এসেছে স্পেনের এই দলটি। গেটাফের বিপক্ষে ১-০ গোলের জয় রিয়ালকে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনার চেয়ে ৪ পয়েন্টে এগিয়ে নিয়ে গেল। ৩৩ ম্যাচ শেষে রিয়ালের পয়েন্ট হলো ৭৪। সমান ম্যাচে পয়েন্ট টেবিলের দুই নম্বরে থাকা বার্সার পয়েন্ট ৭০। আর চারটি জয় পেলেই রিয়াল বনে যাবে লা লিগার নতুন চ্যাম্পিয়ন।

%d bloggers like this: