ময়মনসিংহে দক্ষ ও নিষ্ঠাবান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নূরে আলম

0
নিজস্ব প্রতিবেদক:

ময়মনসিংহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নূরে আলমের দক্ষতা , নিষ্ঠা আন্তরিক ভূমিকা ও  কার্যকর পদক্ষেপের কারনে জেলার পুলিশ বিভাগের উপর সাধারন মানুষের আস্থা ও নির্ভরশীলতা ক্রমেই বৃদ্ধি পাচ্ছে।

ইতিপূর্বে ডিএসবির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পদে এবং বর্তমানে জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কর্মরত এই কর্মকর্তা ময়মনসিংহ প্রতিদিনকে দেয়া সাক্ষাতকারে বলেছেন, বর্তমান জেলা পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম, সাবেক পুলিশ সুপার মঈনুল হকের নির্দেশে ইতিপূর্ব থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত ময়মনসিংহে অব্যাহত অভিযানে জঙ্গিদের ইতিমধ্যে দুর্বল করে দেওয়া হয়েছে।

জঙ্গি দমনে সারা দেশের মত ময়মনসিংহ পুলিশের তৎপরতা ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে।তিনি বলেন, আমার সফলতায় ঈর্ষান্তিত হয়ে একটি স্বার্থান্বেষী মহল তাদের অয্যেক্তিক দাবীকৃত কার্যাদি আমাকে দিয়ে সম্পাদন করতে না পেয়ে আমার তথা পুলিশের ভাবমূর্তি নষ্টের চেষ্টা করছে ।
নূরে আলম বলেন, ‘সরকারের কর্মসূচি বাস্তবায়নে পুলিশ আইনগত সহায়তা করে। কিন্তু একটি বিশেষ মহল অপপ্রচার চালিয়ে পুলিশের ভাবমুর্তি নষ্ট করার অপচেষ্টা করছে। তাদের থেকে সর্তক থাকতে হবে।’

জঙ্গি, সন্ত্রাস,মাদকসহ যে কোন অপরাধ দমনে এই অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নূরে আলমের কঠোর অবস্থানের কারনে ‘পুলিশ জনগনের বন্ধু’ মানুষের মনে এবিশ্বাস শতভাগ বলে জানিয়ে জেলার বাসিন্দারা ।

জেলা পুলিশ সুপারের নির্দেশে নূরে আলমের নেতৃত্বে প্রভাবশালী অপরাধীদের গ্রেপ্তার, মালামাল উদ্ধার ও মাদক নির্মূলে কঠোর ভূমিকায় পুলিশের সুনাম ছড়িয়ে পড়েছে।

বিগত সময় অনেক কর্মকর্তা সামান্য কোন সফলতায় ডাকঢোল পিটিয়ে প্রচারে উৎসাহ লক্ষ্য করা গেলেও বর্তমান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নূরে আলমসহ কয়েকজন কর্মকর্তার সততা, নিষ্ঠ ও আন্তরিকতার নিরব কর্মকান্ড স্থানীয় সকল মহলে বিভাগীয় সুনাম ও ভাবমূর্তি বৃদ্ধি করেছে বলে সচেতন মহল মতব্যক্ত করেছেন।

বিভিন্ন সংঘর্ষ ও মামলা পাল্টা মামলার ঘটনায় আইন শৃঙ্খলা বিঘœ ঘটনার উপক্রম হলে পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তাদের কঠোর ভূমিকায় পরিস্থিতি শান্ত হয়ে যায়। এছাড়া একাধিক চুরি ও লুটে নেয়া অর্থ মোবাইল ফোন সহ মূল্যবান মালামাল উদ্ধার করে ভূক্তভুগীদের মাঝে ফিরিয়ে দেয়ায় পুলিশের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন ভূক্তভোগী মহল।

তবে বর্তমান  পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলামের নির্দেশে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নূরে আলম ময়মনসিংহ জেলা জুড়ে মাদক ব্যবসায়ীদের চোখের ঘুম হারাম করে দিতে সক্ষম হয়েছে বলে অকিবহল সূত্রগুলো জানিয়েছে।

ইতিমধ্যে স্থানীয় মাদক স্পট ও মাদক ব্যবসায়ীদের একর পর এক গ্রেপ্তার ও ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা প্রদানে সক্ষম হওয়ায় এদের মধ্যে পুলিশ আতংক বিরাজ করছে। যে কারনে পূর্বের যে কোন সময়ের চেয়ে বর্তমানে ময়মনসিংহ মাদকের বিস্তার উল্লেখযোগ্য হ্রাস পেয়েছে বলে জানাগেছে।

পুলিশের প্রধান কর্মকর্তাবৃন্দ এসব আইনী অভিযানের পাশাপাশি স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও গন্যমান্যদের নিয়ে শহর থেকে গ্রাম পর্যন্ত নিয়মিত মাদক বিরোধী সভা-সমাবেশের মাধ্যমে গনসচেতনতা সৃষ্টির প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

যারফলে মাদক বিক্রি বা সেবনকারীদের গ্রেপ্তার করা হলে তাদের পক্ষে কোন মহলে কোন প্রকার শুপারিস বা তদবীর করতে সাহস পাচ্ছেনা ।

এদিকে ঢাকা থেকে প্রকাশিত একটি দৈনিক তার বিরুদ্ধে মনগড়া, মিথ্যা, মানোয়াট ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত একটি সংবাদ প্রকাশ হওয়ার পর ময়মনসিংহবাসীর তীব্র ক্ষোভ ও অসন্তোষ বিরাজ করছে । তারা বলছেন, একজন সুযোগ্য, দক্ষ ও নিষ্ঠাবান কর্মকর্তাকে জড়িয়ে যারা কাল্পনিক সংবাদ প্রকাশ করে তারা কখনোই ময়মনসিংহের ভালো চান না । তারা এই মিথ্যা বানোয়াট সংবাদের নিন্দা জানান ।

%d bloggers like this: