ময়মনসিংহে আটক ৭ জঙ্গি পুলিশ হেফাজতে

0

মাসুদ রানা, ময়মনসিংহ:
ময়মনসিংহের কালী বাড়ি রোডের একটি এক তলা বাড়ি থেকে দরজা ভেঙে জঙ্গি সন্দেহে ৭ জনকে আটক করেছে পুলিশ। এসময় ওই বাড়ি থেকে অভিযান চালিয়ে জিহাদি বই, ব্যাংকে লেনদেন হওয়া পঞ্চাশ লক্ষ টাকার একটি চেক বই, দুইটি কম্পিউটার, ইলেকট্রনিক সামগ্রী উদ্ধার করেছে পুলিশ।

তবে কম্পিউটারে ইসলামি বিপ্লবসংক্রান্ত প্রচুর তথ্য পাওয়া গেছে। সোমবার (০৩ এপ্রিল ) দুপুরে নগরীর কালিবাড়ি এলাকার অ্যাডভোকেট আসিফ আনোয়ার মুরাদের ১৭০ নং বাড়িতে ৪ ঘন্টা শ্বাসরুদ্ধকর অভিযান চালিয়ে জঙ্গিদের আটক করে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে । ওই বাড়ীর আসল মালকি মুরাদের বাবা আনোয়ারুল কাদের । তিনি ১৯৭০ সালে ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জের এমএলএ নির্বাচিত হয়েছিলেন।

add1

আটক হওয়া জঙ্গিদের নাম ১/ আল আমিন (২৫) ধোবাউড়া, ২/ শহিদুল ইসলাম (২৮) হালুয়াঘাট, ৩/ আশিকুর রহমান (২৮) হালুয়াঘাট জেলা ময়মনসিংহ, ৪/ শাহ আল রোমন শামিম (২৭) পূর্বধলা, ৫/ মাসুন আহমেদ (৩০) সে প্রাণ আর এফ এল ও অলিম্পিক কোম্পানির ডিলার তার বাড়ী পূর্বধলা, ৬/ রুমান মিয়া ( ২৭) পূর্বধলা জেলা নেত্রকোনা, ৭/ নাসির উদ্দিন (২৭) মেলান্দহ জামালপুর । পুলিশের ভাষ্য, জঙ্গিরা চার মাস আগে বাড়িটি ভাড়া নেয়। আটক হওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে একজন ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের ছাত্র বলে দাবি পুলিশের । এবিষয়ে ময়মনসিংহ জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) সৈয়দ নুরুল ইসলাম জানান, সোমবার বেলা ১২টার দিকে ওই বাড়িটি ঘিরে ফেলে পুলিশ । এরপর সাড়ে বারোটার দিকে ওই বাড়িতে ঢোকে আইনশৃংখলাবাহিনী। তিনি আরো জানান, দুপুর দুইটা থেকে অভিযান শুরু করে পুলিশ।

প্রথমে ‘জঙ্গি’দের আত্মসমর্পণের আহ্বান জানানো হয়। এতে জঙ্গিরা সাড়া না দেওয়ায় বাড়িটির একাধিক কক্ষের দরজা ভেঙে ওই বাড়ি থেকে সাতজনকে আটক করেছে পুলিশ। তবে পুলিশের অভিযানের প্রায় দুই ঘন্টা পর র‌্যাব সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌছে । এদিকে পুলিশের উপ-মহা পরিদর্শক (ডিআইজি) চৌধুরী আব্দুল আল মামুন ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের বলেন, গোপন সূত্রে পুলিশ খবর পেয়ে নগরীর কালী বাড়ি রোডের একটি এক তলা বাড়ি ঘিরে ফেলে পুলিশ ।

প্রথমে ‘জঙ্গি’রা প্রতিরোধের চেষ্টা করলেও র‌্যাব ও পুলিশের ব্যাপক উপস্থিতির কারণে পালাতে পারেনি। পুলিশ এ অভিযানে সাত জঙ্গিকে আটক করেছে। তবে ধারণা করা হচ্ছে, বাড়িটির ভেতর আর কোনো জঙ্গি নেই। অন্যদিকে ময়মনসিংহের জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) মো. নূরে আলম জানান, আটককৃতরা বাড়ির বাইরে যেত না। বাড়ির ভেতরেই তারা আযান দিতো এবং সেখানে নামাজ পড়তো। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে পুলিশ ওই বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে।

%d bloggers like this: