মৃত্যুপথযাত্রী বৃদ্ধকে উদ্ধার করেছে গৌরীপুর থানার দুই মানবিক পুলিশ অফিসার

0

স্টাফ রিপোর্টার :

ময়মনসিংহের গৌরীপুর মৃত্যুপথযাত্রী এক বৃদ্ধকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। পরে তাকে তার স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

বৃদ্ধ ছাবেদ আলী (৫০) উপজেলার মাওহা ইউনিয়নের চল্লিশা করেহা গ্রামের বাসিন্দা। ১৪ দিন আগে ছাবেদ আলী নিখোঁজ হন। পরে অনেক খোঁজ করেও তার সন্ধান পাওয়া যায়নি।

শনিবার ( ৯জানুয়ারি/২১) বিকেলে উপজেলার সিধলা ইউনিয়নের পাইস্কা বিলের ধানখেত থেকে মৃতপ্রায় ছাবেদ আলীকে উদ্ধার করে পুলিশ।

এ বিষয়ে গৌরীপুর থানার এসআই মাইনুল রেজা দুর্নীতি বার্তা কে জানান গৌরীপুর থানার সম্মানিত অফিসার ইনচার্জ বোরহান উদ্দিন স্যার আমাকে ফোনে জানান গৌরীপুর থানাধীন সিধলা ইউনিয়নে পাস্কে গ্রামে একজন অজ্ঞাত নামা লোক খোলা মাঠে অজ্ঞান অবস্থায় পড়ে আছেন।

স্যারের নির্দেশনা অনুযায়ী আমিও আমার সঙ্গীয় অফিসার এ এস আই মুস্তাক দ্রুত ঘটনাস্থলে যায়। ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখী অজ্ঞান প্রায় মৃত্যুপথযাত্রী মুখে পানি চিটা দেওয়ার অনেক ক্ষণ পর একটু অনুভুতি বুজাযায় তারপর ওই ব্যক্তির সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করি।

এক পর্যায়ে সে ব্যক্তি খুব আস্তে করে বলে তার গ্রামের নাম চল্লিশা করেহা। চল্লিশা করেহায় আমার পরিচিত একজন ব্যক্তি ছিল নাম কাঞ্চন। আমি কাঞ্চন ভাইকে ফোন দিলাম এবং তার গ্রামে কোন ব্যক্তিকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল কিনা তাকে জিজ্ঞাসা করি? কাঞ্চন ভাই বলে যে হ্যাঁ। আমি কাঞ্চন ভাইকে পড়ে থাকা লোকটির শারীরিক বর্ণনা করলাম সাথে সাথে কাঞ্চন ভাই লোকটিকে আন্দাজ করতে পারে এবং তার ছেলে মোহাম্মদ সায়েম কে বিষয়টি জানায় এবং আমার ফোন নাম্বার দেয়।

এক মিনিট পর সায়েম নামের ছেলেটি আমাকে ফোন দেয় বলে স্যার আপনি থাকেন আমি আসতেছি। পরবর্তীতে সায়েম ও তার দুই চাচাতো ভাই ঘটনাস্থলে আসে এবং সায়েম পড়ে থাকা ব্যক্তি কে শনাক্ত করে। যে উক্ত ব্যক্তি তার বাবা মোঃ ছাবেদ মিয়া ( ৫০)।তার পর সায়েম ও তার দুই চাচাতো সহ সেই ব্যক্তি বুঝিয়ে দিয়ে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠিয়ে দেই। তিনি আরো তাদের থাকার মতো একটি ঘর ও নেই অসহায় হতদরিদ্র তাই আমি কিছু আর্থিক সহযোগিতা করেছি।

গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি)মোঃ বোরহান উদ্দিন খান জানান, বর্তমান পুলিশ মানবিক ও জনবান্ধব। তার উৎকৃষ্ট উদাহরণ মাইনুল রেজা ও মোস্তাক হোসেন পেশাগত দায়িত্বের বাহিরে মানবিক কাজ করেছে।

%d bloggers like this: