ব্রাসিলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে হচ্ছে ‘বঙ্গবন্ধু চেয়ার’

0

নিজস্ব প্রতিবেদক :

ল্যাটিন আমেরিকার ব্রাসালিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের দক্ষিণ এশিয়া বিভাগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে একটি চেয়ার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। একইসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়টির এক অধ্যাপক বঙ্গবন্ধুর লেখা ঐতিহাসিক গ্রন্থ ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ ব্রাজিলিয়ান পুর্তগিজ ভাষায় অনুবাদ করবেন, যা বিশ্ববিদ্যালয়ের মুদ্রিত হবে।

মঙ্গলবার ব্রাজিলের বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে পাঠানো এক বার্তায় এ তথ্য জানানো হয়।

বার্তা বলা হয়, সম্প্রতি ব্রাজিলে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. জুলফিকার রহমান ও বিশ্ববিদ্যালয়ের রেক্টর (উপাচার্য) ড. মার্সিয়া আবরাও মৌরার মধ্যে এক বৈঠকে এসব গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

এই দুটি জনকূটনীতিক উদ্যোগ বাস্তবায়নের মাধ্যমে ল্যাটিন আমেরিকায় বাংলাদেশ ব্র্যান্ডিং আরও এগিয়ে যাবে বলে আশা প্রকাশ করেন রাষ্ট্রদূত।

দূতাবাস জানায়, ব্রাসিলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতিষ্ঠিতব্য বঙ্গবন্ধু চেয়ারের আওতায় মূলত বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামী জীবন ও তার অর্জনসমূহ নিয়ে গবেষণা করা হবে। বঙ্গবন্ধুর অবিসংবাদিত নেতৃত্ব ও বাঙালির মুক্তি তথা বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানের অবদান নিয়ে ব্রাজিলিয়ান গবেষকরা গবেষণা করবেন।

যুদ্ধবিধস্ত বাংলাদেশ পুনর্গঠনে ও সদ্যস্বাধীন বাংলাদেশকে বিশ্বসভায় প্রতিষ্ঠা করার কাজে বঙ্গবন্ধুর সাহসী নেতৃত্ব নিয়েও তারা কাজ করবেন।

এই বিশ্ববিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধু চেয়ার প্রতিষ্ঠা বাংলাদেশের আর্থসামাজিক উন্নয়ন বিষয়ে গবেষণার ক্ষেত্রেও ব্রাজিলিয়ান গবেষকদের জন্য এক নবদিগন্তের সূচনা করবে।

এসব গবেষণাকর্ম বাংলাদেশের ভূকৌশলগত ও ভূরাজনৈতিক গুরুত্ব অনুধাবনে ব্রাজিলের নীতিনির্ধারকদেরকে সহায়তা করবে বলে বার্তায় উল্লেখ করে দূতাবাস।

অন্যদিকে বঙ্গবন্ধুর ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ ব্রাজিলিয়ান পর্তুগিজ ভাষায় অনুবাদ সম্পন্ন হলে সেটি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ব্রাজিলের জনগণের কাছে তুলে ধরবে।

এটি দুই দেশের জনগণের মধ্যে বন্ধুত্বের এক সেতুবন্ধন রচনা করবে, যা অন্যতম উদীয়মান অর্থনীতি বাংলাদেশের সাথে ল্যাটিন আমেরিকার সর্ববৃহৎ ও বিশ্বের অষ্টম বৃহত্তম অর্থনীতি ব্রাজিলের মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।

 

%d bloggers like this: