ঢাকা ৩৪°সে ১৩ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

গৌরীপুর গরম হাওয়ায় পুড়ে গেছে বোরো ধানের শীষ!

স্টাফ রিপোর্টার :

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে রোববারের গরম দমকা হাওয়ায় মাঠে পুড়ে গেছে ব্রি ধান ২৮,
হাইব্রিড,বি আর ২৬ সহ অন্যান্য প্রজাতির বোরো ধানের শীষ।

হঠাৎ কালবৈশাখী ঝড়ে ময়মনসিংহ জেলার গৌরীপুর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে হাইব্রিড ও অন্যান্য জাতের বোরো ধানের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।
স্থানীয় কৃষকরা জানান, রোববার বিকালে হঠাৎ কালবৈশাখীর ঝড়ের সময় গরম বাতাস শুরু হয়, এই গরম বাতাসের ফলে হাইব্রিড সহ অন্যান্য জাতের বোরো জমির ধানের শীষ সাদা হয়ে গেছে।

এ বিষয়ে রামগোপালপুর ইউনিয়নের রামগোপালপুর গ্রামের মৃত হাফিজ উদ্দিনের ছেলে কৃষক আবুল কাশেম জানান, গতকাল রোববার বিকালে থেকে শুরু হওয়া কালবৈশাখীর গরম বাতাসে তাদের জমির ধান পুড়ে সাদা হয়ে গিয়েছে।

একই গ্রামের শামছুল হকের ছেলে আবুল কালাম নামে আরেক কৃষক জানান, দক্ষিণা গরম বাতাসে হাইব্রিড সচহ সব জাতের ধান পুড়ে গিয়েছে তাই তিনি সরকারের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

এ বিষয়ে মাওহা ইউনিয়নের তাতীরপায়া গ্রামের মৃত আব্দুল খালেকের পুত্র কৃষক আজিজুল রহমান জানান, গতকাল রোববার বিকালে থেকে শুরু হওয়া কালবৈশাখীর গরম বাতাসে তাদের জমির ধান গাছের ছড়া সাদা হয়ে গিয়েছে ।

এছাড়াও মাওহা গ্রামের কৃষক মোজাম্মেল হোসেন জানান, দক্ষিণা গরম বাতাসে হাইব্রিড জাতের ধানের ছড়া সাদা হয়ে গিয়েছে তাই তিনি সরকারের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

এছাড়াও কড়েহা লোনাপাড়া গ্রামের কৃষক শাহজাহান কবির জানান, আমার জমি সহ মাওহা ইউনিয়নের মাওহা, কড়েহা নহাটা, তাতীরপায়া, কিল্লাতাজপুর, রামকৃষ্ণপুর গ্রামের দুই থেকে তিন শতাধিক কৃষকের হাইব্রীড ধানের শীষ সাদা হয়ে গিয়েছে।

এ ছাড়াও আরো অনেকেই জানান, রোববার বিকাল থেকে শুরু হয়ে রাত পর্যন্ত চলা কালবৈশাখী ঝড়ের সময় গরম বাতাসে হাইব্রিড ও অন্যান্য জাতের ধানের শীষ সাদা হয়ে গেছে। এতে করে কৃষক ভাইদের মাঝে একটি হাহাকার সৃষ্টি হয়েছে। এবং কৃষক বড় ধরনের ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন।

এ বিষয়ে সোমবার (৫ এপ্রিল/২০২১)উপজেলা কৃষি অফিসার লুৎফুর নাহার লিপি জানান উপজেলার কয়েকটি ইউনিয়নের উপর দিয়ে ভয়ে যাওয়া প্রাকৃতিক দূর্যোগের কারনে ক্ষতি হয়েছে,সব ছেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে মাওয়া,সহনাটি,রামগোপালপুর,গৌরীপুর এবং বোকাইনগর ইউনিয়ন এছাড়াও বাকি ইউনিয়ন গুলো তুলনামূলক কম ক্ষতি হয়েছে। বিষয়টি আমাদের উর্ধতন কতৃপক্ষকে জানানো হয়েছে ।
উল্লেখ্য, গৌরীপুর উপজেলা কৃষি অফিস সুত্রে জানা যায় উপজেলায় চলতি বোরো মৌসুমে ১০টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা সহ ২০ হাজার ৬শত ১০হেক্টর জমিতে বোরো ধান চাষ করা হয়েছিল।যা গত বছরের তুলনায় বেশি জমিতে বোরোধান চাষের লক্ষ মাত্রা নির্ধারণ ছিল।

 

 




আপনার মতামত লিখুন :