ঢাকা ৩০°সে ১৮ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

মুক্তাগাছার সাবেক সাংসদের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের মামলা

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি :

ময়মনসিংহ-৫ (মুক্তাগাছা) আসনের সাবেক সাংসদ (জাতীয় পার্টি) সালাউদ্দিন আহমেদ মুক্তির বিরুদ্ধে ৩৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগে মামলা হয়েছে। ময়মনসিংহ ২ নম্বর আমলি আদালতের বিচারক হাফিজ আল আসাদের নিকট মামলাটি করেন মুক্তাগাছা উপজেলার দাওগাঁও ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির সভাপতি শাহাজাহান সরকার।

গত ১৪ দায়েকৃত মামলাটি আদালত গ্রহণ করেছে। এ মামলার আরও পাঁচজন সাক্ষী রয়েছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাদী পক্ষের আইনজীবী শাহজাহান কবির সাজু।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, সালাহ উদ্দিন আহমেদ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর তার নির্বাচনী এলাকার দলীয় নেতাকর্মীসহ স্থানীয় বিভিন্ন লোকজনকে সরকারি দপ্তরে চাকরি দেয়ার কথা বলে এক কোটি টাকার বেশি হাতিয়ে নিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠে। কিন্তু পরবর্তীতে কেউ চাকরি পাননি এবং সেই টাকা ফেরতও দেননি সাবেক এই এমপি। পরে প্রতারণার শিকার শাহাজাহান সরকারসহ ছয়জন ৩৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা ফেরত চেয়ে এ মামলা করেন।

শাহাজাহান সরকার বলেন, ‘আমার নাতিকে কাঠবৌলা বাজার ফাজিল মাদ্রাসায় চাকরি দেয়ার নামে সাবেক সাংসদ সালাহ উদ্দিন আমার কাছ থেকে পাঁচ লাখ টাকা নেয়। কিন্তু চাকরি দিতে না পেরেও টাকা দিচ্ছে না। বিভিন্ন তালবাহানা করে ঘুরাচ্ছে। কোনো উপায় না পেয়ে আমি আদালতের আশ্রয় নিয়েছি।’

অপর এক ভুক্তভোগী তানিয়া বেগম বলেন, ‘আমি ময়মনসিংহ সদরের দাপুনিয়া এলাকার বাসিন্দা। এমপি আমাকে তথ্য-মন্ত্রণালয়ে চাকরি দেবে বলে ১২ লাখ টাকা নেন। কিন্তু চাকরির ব্যবস্থা করে দিতে পারেননি। পরে টাকার জন্য যোগাযোগ করলে দেই-দিচ্ছি বলে ঘুরাতে থাকেন। এখন আইনের আশ্রয় নিয়েছি। ১২ লাখ টাকা ঋণ এবং ধার করে দিয়েছি। এখন আমি আমার টাকা ফেরত চাই।’

তবে অভিযুক্ত সালাহ উদ্দিন আহমেদ মুক্তি মুঠোফোনে বলেন, ‘মামলার বিষয়ে আমি অবগত নই। আমাকে রাজনৈতিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করতে মিথ্যা মামলা করা হয়েছে।’




আপনার মতামত লিখুন :