বিডি ক্লিন ঈশ্বরগঞ্জ ময়লা স্থান পরিস্কারই নয়, অপরিচ্ছন্ন বিবেককেও জাগ্রত করছে

0

ঈশ্বরগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

‘‘শুধু ময়লা স্থান পরিষ্কার করতে আসিনি বরং আপনাদের অপরিচ্ছন্ন বিবেককে জাগ্রত করতে এসেছি। দেশব্যাপী ময়লা স্থান পরিষ্কার করার জন্য আলাদা লোক নিয়োগ দেয়া আছে, তাই বলে যেখানে সেখানে ময়লা ফেলে পরিচ্ছন্ন স্থানকে নোংরা করা তো আমাদের দায়িত্ব হতে পারেনা। মনে রাখা উচিৎ দেশকে পরিচ্ছন্ন রাখা আমাদের সকলের নাগরিক দায়িত্ব। যেহেতু আপনি যেখানে সেখানে ময়লা ফেলে দেশের মাটিকে অবিরাম নোংরা করে চলেছেন, সেহেতু আপনাকে সচেতন করতে, অথবা বলতে পারেন আপনাকে লজ্জ্বা দিতেই আমাদের এই পরিস্কার কর্মসূচি।” এভাবেই নিজের অনুভূতি প্রকাশ করছিলেন বিডি ক্লিন ঈশ্বরগঞ্জ সমন্বয়ক খাইরুল ইসলাম আলামিন।

পরিস্কার পরিচ্ছন্ন উপজেলা হিসেবে বাংলাদেশের বুকে তুলে ধরা এবং বিডি ক্লিন এর সঙ্গে তাল মিলিয়ে ২০২১ সালের মধ্যে পরিচ্ছন্ন একটি বাংলাদেশ উপহার দেয়ার প্রত্যয়ে সারাদেশের মত ঈশ্বরগঞ্জেও যাত্রা শুরু করেছে বিডি ক্লিন। পরিচ্ছন্নতা বিষয়ক সচেতনতা জাগ্রত করে, নতুন প্রজন্মকে একটি পরিচ্ছন্ন ও জীবাণুমুক্ত একটি উপজেলা তথা সুন্দর একটি বাংলাদেশ উপহার দিতে ঈশ্বরগঞ্জ সরকারি কলেজে আয়োজিত একটি আনুষ্ঠানিক সভার মাধ্যমে শুরু হয় বিডি ক্লিন ঈশ্বরগঞ্জ নামের স্বেচ্ছাসেবী এই সংগঠনের যাত্রা।

‘পরিচ্ছন্নতা শুরু হোক আমার থেকে’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে বিডি ক্লিন- ঈশ্বরগঞ্জের প্রায় ৫০ জন স্বেচ্ছাসেবী ইতিমধ্যে দুইটি ইভেন্ট সম্পন্ন করেছে বলে জানিয়েছেন টিম মনিটর মুমিনুল ইসলাম ।

ইশতিয়াক আহমেদ ইসহাক, সুবর্ণা মুস্তফা, মিমি খান, আসিফ বিন আজাদ, জুনায়েদুই ইসলাম, মোঃ আবির, নুসরাত জাহান অর্পিতা, শেখ মাহমুদ নানকসহ প্রায় অর্ধশত তরুণ-তরুণী পরিচ্ছন্ন ঈশ্বরগঞ্জ গড়ার একটি সুন্দর স্বপ্ন বাস্তবায়নে বিডি ক্লিন ঈশ্বরগঞ্জের সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন।

গত ১১ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সকাল ৯ টায় ঈশ্বরগঞ্জ চৌকি আদালত এলাকায় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন ও সচেতনতা সৃষ্টির মধ্য দিয়ে বিডি ক্লিন ঈশ্বরগঞ্জ ১ম কর্মসূচি শুরু করে।

আজ ১৮ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সকাল ৯ টার দিকে ঈশ্বরগঞ্জ স্টেশন এলাকায় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন ও সচেতনায় বিডি ক্লিন ঈশ্বরগঞ্জ এর ২য় কর্মসূচী সম্পন্ন করে।

বিডি ক্লিন ঈশ্বরগঞ্জ টিমের সদস্য ইশতিয়াক আহমেদ ইসহাক বলেন, ‘ছোট্ট একটি সংগঠন বিডি ক্লিন এর মাধ্যমে তরুনদের প্রচেষ্টায় যদি দেশের এতগুলো স্থান চকচকে পরিষ্কার করা সম্ভব হয়, তবে এদেশের সকল রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক, স্বেচ্ছাসেবী, সামাজিক, সরকারি-বেসরকারি ও বিভিন্ন সেবামূলক সংগঠনের মাধ্যমে একদিনেই সমগ্র বাংলাদেশকে পরিষ্কার করে পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশ ঘোষণা করাও সম্ভব।

তরুণ এই স্বেচ্ছাসেবক সকল নাগরিকের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, এদেশের প্রতিটি মানুষকে রোগজীবাণুর আক্রমণ থেকে রক্ষা করে সুস্থভাবে বাঁচতে আসুন পরিচ্ছন্ন মানসিকতা গড়ে তুলি, পরিহার করি যত্রতত্র ময়লা ফেলার নোংরা অভ্যাস, গড়ে তুলি পরিচ্ছন্ন ও জীবাণুমুক্ত সোনার বাংলাদেশ।

%d bloggers like this: