বাংলাদেশের সামনে ৩১২ রানের চ্যালেঞ্জ

0

তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে কুশাল মেন্ডিসের ১০২ আর উপল থারাঙ্গার ৬৫ রানে ভর করে বাংলাদেশের সামনে ৩১২ রানের চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্যমাত্রা ছুঁড়ে দিল স্বাগতিক শ্রীলঙ্কা।

ডাম্বুলায় টস জিতে আজ আর ভুল করেননি লঙ্কান দলনেতা উপল থারাঙ্গা। আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন। শুরুতে অবশ্য নিশানা খুঁজে পাননি। ১৮ রানের মাথায় ওপেনার দানুশকা গুনাথিলাকাকে হারায় দলটি।

প্রথম ওয়ানডের মতো আজও মাশরাফির হাত ধরে আসে প্রথম উইকেট। ১১ বলে ৯ রান করার পর উড়িয়ে মারতে গিয়ে মুশফিকের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান গুনাথিলাকা।

এক উইকেট হারানোর পর মেন্ডিস-থারাঙ্গা মিলে ১১১ রানের দারুণ এক জুটি গড়ে শ্রীলঙ্কা। দলের স্কোর যখন ১২৯। তখনই দ্বিতীয় শিকারের দেখা পায় বাংলাদেশ। মাহমুদউল্লাহর করা থ্রো’তে রান আউটে কাটা পড়েন থারাঙ্গা। আউট হওয়ার আগে দলকে দিয়ে যান ৬৫ রানের ইনিংস।

থারাঙ্গা চলে গেলেও থেমে থাকেনি শ্রীলঙ্কার রানের চাকা। চান্দিমালকে নিয়ে আবারও জুটি মেরামতের কাজ করে যান গল টেস্টের নায়ক মেন্ডিস। ৪১ রানের জুটি গড়ার পথে মেন্ডিস পূর্ণ করেন নিজের শতরান।

প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে ৫৯ রান করা দিনেশ চান্দিমালকে খুব একটা বাড়তে দেননি মোস্তাফিজুর রহমান। ব্যক্তিগত ২৪ রানের মাথায় চান্দিমালকে এলবির ফাঁদে ফেলেন মোস্তাফিজ।

মোস্তাফিজ উইকেট পাওয়ার পরের ওভারেই লঙ্কান শিবিরে চতুর্থ ছোবল বসান তাসকিন আহমেদ। নিজের বলে নিজেই ক্যাচ লুফে সেঞ্চুরিয়ান কুশাল মেন্ডিসকে বিদায় করেন এই টাইগার পেসার।

আগের নয় ওভারে উইকেটের দেখা না পাওয়া মেহেদী হাসান মিরাজ ব্যক্তিগত দশম ওভারে দলের জন্য পঞ্চম সাফল্য এনে দেন। ৩০ রান করা মিলিন্দা সিরিবর্দনেকে সরাসরি বোল্ড করেন মিরাজ।

প্রথম ওয়ানডেতে ৩৫ বলে ৫৫ করা থিসারা পেরেরা আজ ব্যাট হাতে সুবিধা করতে পারেননি। ৯ রান করেই মুশফিকুর রহিমের করা থ্রো’তে রান আউটের শিকার হন পেরেরা। সপ্তম উইকেটও আসে মুশফিকের ঝুলি থেকে।

%d bloggers like this: