পূর্বধলায় জামাত এর আমীরের সাথে মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কাদিরের ঘনিষ্ট সম্পর্ক নিয়ে জনমনে প্রশ্ন

0
নেত্রকোনা জেলা প্রতিনিধি:
নেত্রকোনা পূর্বধলায় জামাতের আমীরের সাথে মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কাদিরের  ঘনিষ্ট বন্ধুত্ব, নিয়ে জনমনে প্রশ্ন ও ক্ষোভ প্রকাশ পাচ্ছে।
পূর্বধলা সচেতন জনগনের সাথে আলোচনা করে জানা যায়, মোঃ আব্দুল কাদির যখন ৬নং পূর্বধলা সদর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হয়ে জনগণের দোয়ারে ভোট চাইতে গিয়েছিল, জনগণ শুধু তার দিক থেকে মুখ ফিরিয়ে নেয়নি, তার ব্যক্তি জীবনের অশ্লীল কার্যকলাপের কথা সামনাসামনি তোলে ধরে তাকে ভোট দেবেনা এমন ঘোষণাও দিয়ে দেয়।
bosku_ad
মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিল নির্বাচনের ফলাফলেও দেখা গেছে মুক্তিযোদ্ধা কাদির সর্বমোট ৩০০ ভোটের মধ্যে সে মাত্র ১৫ ভোট পেয়েছে। এতে ব্যক্তি হিসেবে মোঃ আব্দুল কাদির এবং তার জনপ্রিয়তা কতটুকু তা নতুন করে বলার কিছু থাকেনা। তবে তাকে নিয়ে আরেক জামাতে আমীর মোঃ আব্দুল মতিন খান-এর ছোট ছেলে পাভেল খান তার ফেইসবুক টাইমলাইনে যেসব  লিখালিখি করছে তা খুব গর্হিত কাজ বলে মনে করা হচ্ছে। সর্বজন স্বীকৃত মোঃ আব্দুল কাদির একজন চরিত্রহীন, লম্পট। অথচ পাভেল খান তাকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সহযোগী বলে আখ্যা দিচ্ছে। ১৭ মার্চ সর্বকালের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতার জন্মদিনকে কেন্দ্র করে পূর্বধলার বিভিন্ন জায়গায় মোঃ আব্দুল কাদেরের দোয়া মাহফিল, আনন্দ রেলির আয়োজন সম্পূর্ণ আষাঢ়ে গল্প।
মিথ্যা, বানোয়াট ও অপপ্রচার দিয়ে সাধারণ জনগণকে বিভ্রান্তিতে ফেলে জামাতে আমীর মোঃ আব্দুল মতিন খান গং কি ফায়দা লুটতে চায় এমন প্রশ্ন আজ অনেকের মনে। তাছাড়া পাভেল খানের লিখায় জামাতের আমীর ও মুক্তিযোদ্ধা কাদিরের মাঝে ব্যক্তিগত, পারিবারিক অথবা রাজনৈতিক মাঠে বেশ গোপন একটা সম্পর্কের গন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। জামাতের আমীরের সাথে মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কাদিরের কেন এই বন্ধুত্ব, কিসের এত সখ্যতা এ নিয়ে জনমনে আতংকও বিরাজ করছে। ।

%d bloggers like this: