পাবনায় নানা আয়োজনে পালিত হল শুভ নববর্ষ

0

পাবনা প্রতিনিধি : ‘হৃদয় নাচে বৈশাখী সাঁজে’ তোরা সব জয়ধ্বনি কর ঐ নূতনের কেতন ওড়ে কাল-বোশেখির ঝড়’। জাতীয় কবির এ পঙ্ক্তির মতোই বাঙালির প্রাণ নতুন চেতনায় জেগে ওঠার দিন আজ ১৪ এপ্রিল। পহেলা বৈশাখ। বাংলা শুভ নববর্ষ। স্বাগত ১৪২৪।

সময়ের চক্রে আবারো ফিরে এলো পহেলা বৈশাখ। নতুন বছরের প্রথম দিন। পেছনের সব গ্লানি মুছে দিয়ে। সামনে এগিয়ে যাওয়ার দিন আজ। আর এরই মাধ্যমে কালের আবর্তে হারিয়ে গেল আরো একটি বছর। প্রাণে প্রাণে হিল্লোল জাগাতে, ঐকতান রচনা করতে আর মানুষে মানুষে বিভেদ।

বাঙালির সবচেয়ে বড় অসাম্প্রদায়িক উৎসব পহেলা বৈশাখ। শুক্রবার বাংলা’র বর্ষপঞ্জীর প্রথম দিন। ভোরের আলো ছড়িয়ে শুরু হবে বাংলা নববর্ষ ১৪২৪। নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে উন্মুখ পুরো দেশ।

প্রাণের এ উৎসবে মেতে ওঠার অপেক্ষায় পাবনাবাসীও। বাঙালিয়ানা বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনায় সম্প্রীতির শহর পাবনায় নানা আয়োজনে পালিত হল শুভ নববর্ষ ।

বাংলা নববর্ষ ১৪২৪ কে বরণ করতে প্রতি বছরের ন্যায় স্কয়ার ফুড এন্ড বেভারেজের উদ্যোগে পাবনার সরকারি এডওয়ার্ড বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ মাঠে এবারও আয়োজন করেছে ‘রুচি বৈশাখী উৎসবের”।

সকাল ৮টায় পাবনার বীরমুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম মুক্তমঞ্চ থেকে বের করা হয় নববর্ষের বর্ণাঢ্য র্যালী। র্যালীতে নেতৃত্ব দেন স্কয়ার টয়লেট্রিজ এন্ড বেভারেজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক অঞ্জন চৌধুরী পিন্টু।

পরে সকাল সাড়ে ৮টায় এডওয়ার্ড কলেজ মাঠে চলছে ওপেন কনসার্ট। এ ছাড়া বাংলা নববর্ষকে বরণ করতে পাবনা জেলা প্রশাসন, রত্নদ্বীপ রির্সোট, পাবনা প্রেসক্লাব, পাইল পয়েন্ট, পাবনা ড্রামা সার্কেল, পাবনা সাংস্কৃতিক পরিষদ, বৌটুবানি পাঠশালা এবং ওসাকাসহ বিভিন্ন সংগঠন নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন।

প্রতিবছরের এই দিনটির জন্য অপো করে পাবনার মানুষ। সকাল থেকেই নানা রঙের পোষাক পরে বিভিন্ন বয়সের মানুষ ভীড় জমায় এডওয়ার্ড কলেজ মাঠে। প্রায় সাড়ে তিন ঘন্টার এই ওপেন কনসার্ট উপভোগ করেন লক্ষাধিক মানুষ। যা পাবনার মানুষের সবচেয়ে সাংস্কৃতিক বড় বিনোদন হিসেবে গন্য হয়ে থাকে। এডওয়ার্ড কলেজ মাঠে তৈরি করা হয় বিশাল মঞ্চ।

এবারের কনসার্টে এ সময়ের জনপ্রিয় ব্যান্ড দল মাইলসসহ কন্ঠশিল্পী এসআই টুটুল, এসডি রুবেল, আনিকা সহ জনপ্রিয় শিল্পীরা। এ ছাড়া নৃত্য পরিবেশন করেন আসাদ খান ও নিসা। অনুষ্ঠানটি মাছরাঙা টেলিভিশন-এ সরাসরি সম্প্রারিত করা হয়।

আয়োজক স্কয়ার ফুড এন্ড বেভারেজ লিমিটেড এবং মাছরাঙা টেলিভিশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক অঞ্জন চৌধুরী পিন্টু বলেন, পাবনাবাসী প্রতি বছর রুচি বৈশাখী উৎসবের জন্য অপেক্ষা করে। এটি এখন পাবনাবাসীর প্রাণের উৎসবে পরিনত হয়েছে। প্রায় লক্ষাধিক মানুষ এই অনুষ্ঠান উপভোগ করে।

পাবনার জেলা প্রশাসক রেখা রানী বালো বলেন, জেলা প্রশাসনসহ পাবনার অনেক সংগঠন বাংলা নববর্ষ ১৪২৪ কে সুন্দরভাবে পালন করে পারে। সেই জন্য   সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা দেওয়া হয়েছে।

পাবনার পুলিশ সুপার জিহাদুল কবীর পিপিএম বলেন, জনসাধারণ যাতে বাংলা নববর্ষ শান্তির্পুণ্য ভাবে অনুষ্ঠান করতে পারে। সেই জন্য জেলার সকল অনুষ্ঠানে নেয়া হয়েছে ৪ স্তুরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা। বসানো হয়েছে র্যাব পুলিশের বিশেষ চেকিং।

%d bloggers like this: