পাবনার আতাইকুলা ইউপিতে প্রতিবন্ধীবান্ধব বাজেট প্রণয়ন বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

0

পাবনা প্রতিনিধি : পাবনা সদর উপজেলার আতাইকুলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খ.ম. আতিয়ার হোসেন বলেছেন, আগামী বাজেটে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য আলাদা বরাদ্দ রাখা হবে । বর্তমান সরকার প্রতিবন্ধীবান্ধব সরকার। প্রতিবন্ধী জনগোষ্ঠীর উন্নয়নে সরকার কাজ করছে। স্থানীয় সরকারের প্রতিনিধি হিসেবে আমাদেরও দায়িত্ব প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের সহযোগিতা করা। আতাইকুলা ইউনিয়ন পরিষদে এসে যে কোন প্রয়োজনে ইউপি সদস্যদের সঙ্গে যোগাযোগ করবেন। তিনি বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ প্রতিবন্ধীবান্ধব করার জন্য আমরা অতিদ্রত র‌্যাম্প করা হবে এবং প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের উপযোগি টয়লেট করা হবে।

সভায় আরও বক্তব্য রাখেন আতাইকুলার ইউপির সচিব আ: রাজ্জাক এবং ইউপি সদস্যবৃন্দ।

সোমবার সকালে আতাইকুলা ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে প্রতীক মহিলা ও শিশু সংস্থা  আয়োজিত এবং ডিআরএফ ও একসেস বাংলাদেশ এর সহযোগিতায় কর্মশালায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন প্রতিবন্ধী প্রতীক মহিলা ও শিশু সংস্থা’র পরিচালক এস এম সাইফুর রহমান। তিনি প্রবন্ধে উল্লেখ করেছেন, ইউনিয়ন পরিষদ ২০১৭-২০১৮ সালের জন্য বাজেট প্রণয়নের  প্রক্রিয়া শুরু করেছে। প্রান্তিক জনগোষ্ঠী হিসেবে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিবর্গের পক্ষে আমরা সেই প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণের প্রয়াস হিসেবে কর্মশালা আয়োজন করেছি।

গত ২৩ ফেব্র“য়ারি ২০১৫ ইং গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়, স্থানীয় সরকার বিভাগ কর্তৃক প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের বিষয়ে ইউনিয়ন পরিষদের করণীয় বিষয়ক একটি পরিপত্র জারি হয়েছে। উক্ত পরিপত্রের গুরুত্বপূর্ণ বিষয়সমূহ হচ্ছে, বাজেট বিষয়ক আয়োজিত ওয়ার্ড সভায় প্রতিবন্ধী ব্যক্তি ও তাদের পরিবার থেকে মতামত গ্রহণ করা, ইউনিয়ন পরিষদ অপারেশনাল ম্যানুয়েলে বাজেট প্রণয়নে গুরুত্বপূর্ণ বিবেচ্য হিসেবে বলা হয়েছে, ‘‘বাজেট তৈরী করার সময় বিবেচনায় রাখতে হবে যেন, নারীর ক্ষমতায়ন, শিশুদের ও যুবকদের কল্যাণ, প্রতিবন্ধী ও বৃদ্ধগণের জন্য যথেষ্ট বরাদ্দ থাকে, যোগাযোগ, স্বাস্থ্য, পানি সরবরাহ, কৃষি ও বাজার উন্নয়ন, পয়:নিস্কাশন ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনা এবং মানব সম্পদ উন্নয়ন ইত্যাদি কার্যক্রম বাস্তবায়নে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের ব্যবহার উপযোগী করা।

যেমন-র‌্যাম্প, টয়লেট ইত্যাদি প্রতিবন্ধীবান্ধব করা।  প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অধিকার ও মর্যাদা সম্পর্কে ইউনিয়ন পরিষদ জনসচেতনা তৈরীর জন্য কিছু কার্যক্রম গ্রহণ করবে। যেমন-প্রতিবন্ধী বিষয়ক তথ্য সম্বলিত বিল বোর্ড স্থাপন, পোষ্টার, সাস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন, ধর্মীয় ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আলোচনা ইত্যাদি। ইউনিয়ন পরিষদ কর্তৃক প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের বিষয়ক তথ্য ও অন্যান্য তথ্য প্রতিবন্ধী বান্ধব করা। যেমন- ছবির সাহায্য তথ্য প্রকাশ ইত্যাদি কার্যক্রম গ্রহণ। ১৩ টি স্থায়ী কমিটির সভা, ইউনিয়ন উন্নয়ন সমন্বয় কমিটি সভা, উন্মক্ত বাজেট সভা, অটিজম কমিটি সভা ইত্যাদি সভাগুলোতে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের প্রতিনিধিত্ব ও উপস্থিতি নিশ্চিত করা এবং মতামত প্রকাশের সুযোগ প্রদান করা।

এছাড়াও আগামী অর্থ বছরের বাজেটে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের পক্ষ থেকে কিছু দাবী তুলে ধরা হয়, প্রতিন্ধী ব্যক্তিদের উন্নয়নের জন্য আলাদা বাজেট রাখা, ইউনিয়ন পরিষদ কর্তৃক তৈরীকৃত অবকাঠামোর মধ্যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সড়ক, কালভার্ট, দরজা-করিডোর-টয়লেট ইত্যাদি নির্মানের ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধীবান্ধব করার জন্য বাজেট রাখা, বিভিন্ন সামাজিক নিরাপত্তামূলক কর্মসূচীর মধ্যে ভাতা, ত্রাণ বিতরন, বিজিএফ কার্ড এবং কাজের বিনিময়ে খাদ্য কর্মসূচীতে প্রতিবন্ধীদের সম্পৃক্ত করা; এবং মূলধারার ক্রীড়া ও সাস্কৃতির জন্য প্রতিবছর যে অর্থ বরাদ্দ থাকে তার এক-দশমাংশ প্রতিবন্ধী ব্যক্তিবর্গের ক্রীড়ার প্রসারে ব্যবহার করা।

%d bloggers like this: