Durnitibarta.com
ঢাকাশুক্রবার , ১৪ অক্টোবর ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ময়মনসিংহে শেষ মুহুর্তে জমে উঠেছে ইসলামী বইমেলা

প্রতিবেদক
Editor
অক্টোবর ১৪, ২০২২ ৮:৫৫ অপরাহ্ণ
Link Copied!

ময়মনসিংহ জেলা প্রতিনিধি :

শিল্প সাহিত্যের নগরী ময়মনসিংহে চলছে ইসলামী বই মেলা। ক্রেতা-দর্শনার্থীরা মেলা প্রাঙ্গণে তাদের পছন্দের বই ঘুরে দেখছেন, পড়ছেন ও কিনছেন।
৯ দিন ব্যাপী এই ইসলামি বইমেলা শুরু হয় গত ৬ অক্টোবর থেকে, চলবে শুক্রবার (১৪ অক্টোবর) রাত ৮ টা পর্যন্ত।
মাহে রবিউল আওয়াল উপলক্ষে নগরীর টাউন হল প্রাঙ্গণে মসিকের সহযোগীতায় ও ইত্তেফাকুল উলামা বৃহত্তর মোমেনশাহীর পৃষ্ঠপোষকতায় বৃহৎ পরিসরে মেলার আয়োজন করেছে সীরাত-কেন্দ্র।
প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত উন্মুক্ত থাকছে মেলার কার্যক্রম। এছাড়াও প্রতিদিন সকাল ১০ থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ‘নারীপ্রহর’ নামে নারীদের জন্য রয়েছে বিশেষ ব্যবস্থা।
মেলার আয়োজক কমিটি সুত্র জানায়, মেলায় ইসলামিক ফাউন্ডেশন, মাকতাবাতুল আযহার, মাকতাবাতুল ইসলাম, রাহনুমা প্রকাশনী, মদীনা পাবলিকেশন্স, মাকতাবাতুল হাসানসহ দেশের প্রথম সারির অর্ধ-শতাধিক প্রকাশনীর ৪৫টি স্টল রয়েছে। এর মাঝে দুটি দোকানে খেজুর, আতর, তসবি, টুপি বিক্রি করা হচ্ছে।
মেলায় বাংলা, ইংরেজি ও আরবি ভাষার বই রয়েছে। ইসলামিক উপন্যাস, ইতিহাস, গল্প, প্রবন্ধ, হুকুম-আহকাম, মাসয়ালা-মাসায়েল-সহ সব ধরনের ইসলামিক বই আছে মেলায়। এছাড়াও মাদ্রাসার দারস কিতাব, আরবি শরাহ ও তাফসিরগ্রন্থও রয়েছে এই মেলায়।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা শিক্ষার্থীরা ঘুরে ঘুরে বই দেখছেন ও কিনছেন। নারীদের উপস্থিতিও ছিল বেশ। তবে, এই মেলায় মাদ্রাসা শিক্ষার্থীর চাইতে স্কুল, কলেজ শিক্ষার্থীরা বেশি আসছেন।
মেলায় আসা মাদ্রাসা শিক্ষার্থী মাসুদ রানা বলেন, এখানে যে বইগুলো পাওয়া যাচ্ছে, লাইব্রেরীতে সচরাচর এই বইগুলো পাওয়া যায় না। তাই, এখানে বই কিনতে আসছি। আমার এখানে আসার উদ্দেশ্যে হলো ইসলাম সম্পর্কে জানা, ইসলামের পথে চলা, ইসলামের বিধি নিষেধ গুলো জানা এবং সেই অনুয়ায়ী চলা।
শিক্ষার্থী আব্দুল্লাহ আল মারুফ বলেন, এখানে ইসলামী বই মেলা হচ্ছে শুনে জেলার মুক্তাগাছা উপজেলা থেকে বই কিনতে আসছি। এখানে এসেছি নিজেকে আলোর পথে ও সত্যের পথে আনার জন্য। বই দেখে অনেক ভাল লেগেছে।
বিক্রেতারা বলছেন, প্রথম দিন থেকেই পাঠকের পদচারণায় মুখর ছিল মেলা প্রাঙ্গণ। আমরা পাঠকের চাহিদা পূরণ করার চেষ্টা করেছি। পাঠকের চাহিদা অনুযায়ী বই এনেছি। তবে, প্রতিবারের চেয়ে বেচাকেনা অনেক ভাল হয়েছে। শেষ মুহুর্তে হয়তো আরও বেচাকেনা বাড়তে পারে।
আয়োজক প্রতিষ্ঠান সীরাত-কেন্দ্রের পরিচালক মাওলানা আমীর ইবনে আহমদ বলেন, ২০০৭ সালে ঢাকার বাইরে প্রথম ময়মনসিংহে ইসলামী বই মেলার আয়োজন করি। এরপর থেকে দেশের বিভিন্ন জায়গায় মেলাটি হচ্ছে। ইতিমধ্যে, চট্টগ্রাম, সিলেট, কুষ্টিয়াসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় মেলার আয়োজন করা হয়। তবে, একটা বিষয় পাঠকদের জানিয়ে রাখি, এবারের এই মেলা এতটা সাড়া ফেলেছে যে, বিভিন্ন যায়গা যেমন, মানিকগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ, কুষ্টিয়া এবং সিলেট থেকে পাঠকরা বই কিনতে আসছেন। তারা ইসলামী বই মেলা আমাদের এই মেলা দেখে নিজেদের অঞ্চলে আয়োজন করতে চাচ্ছেন এবং আমাদের সহায়তা চাচ্ছেন। তবে, আমাদের সাধ্যমত তাদের সহায়তা করব বলে আশ্বাস দিয়েছি।
তিনি আরও বলেন, এবারের আয়োজনটা শহরের প্রাণ কেন্দ্রে হওয়ায় এবং যাতায়াত সহজ হওয়ায় স্কুল, কলেজ, বিশ্বিবদ্যালয়, মেডিকেল কলেজসহ সকল শ্রেণী পেশার মানুষ এই মেলায় আসছেন। মাদ্রাসা শিক্ষার্থীর চাইতে জেনারেল শিক্ষার্থীরাই বেশি আসছেন। তবে, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের অধ্যাপক, শিক্ষক, বিভাগীয় প্রধানরাও আসছেন এই মেলায়।সকলের চাহিদা বিবেচনা রেখে ঢাকা থেকে বই এনেছি যাতে তাদের চাহিদা মত বই গুলো নিতে পারেন।
মাওলানা আমীর ইবনে আহমদ আরও বলেন, আমাদের উদ্দেশ্য শতভাগ সফল। এর কারণ হচ্ছে আমরা লক্ষ করেছি, এবারের মেলায় মাদ্রাসার শিক্ষক ছাত্র যেমন এসেছেন সাধারণ মানুষও এসেছেন। অনেক অমুসলিমরাও এসেছেন। আমরা তাদের অভ্যার্থনা জানিয়েছি, তাদেরকে আপ্যায়ন করেছি আমাদের পক্ষ থেকে বই গিফট দিয়েছি, তারাও অভিনন্দন জানিয়েছেন। আমরা অনুভব করতে পারছি যে, আমাদের আয়োজন শতভাগ সফল। এর পাশাপাশি আমরা বলবো যে এই আয়োজনে আমরা ব্যাপক সাড়া পেয়েছি। এই আয়োজন যেন প্রতি বছর করি, এমন অনুরোধ জানিয়েছেন অনেকে।