loading...

দলের নেতৃত্ব ছাড়তে পারলে খুশি হবেন শেখ হাসিনা

0

নিজস্ব প্রতিবেদক: 

 

আওয়ামী লীগের সভাপতির পদে থাকতে না হলে খুশি হতেন শেখ হাসিনা। বলেছেন, অনেক বছর এ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। দলের নেতাকর্মীরা অন্য কাউকে সভাপতি নির্বাচন করলে তিনি সবচেয়ে বেশি খুশি হবেন।

বিকালে গণভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের ২০তম জাতীয় সম্মেলন নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা এ কথা বলেন। কানাডা ও যুক্তরাষ্টে প্রধানমন্ত্রী ১৭ দিনের সফর সম্পর্কে জানাতে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

দৈনিক সমকালের সম্পাদক গোলাম সরোয়ার প্রধানমন্ত্রীর কাছে জানতে চান আওয়ামী লীগের আগামী জাতীয় সম্মেলনে নেতৃত্বে কারা আসছেন। জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, দলের কাউন্সিলরা নেতৃত্ব নির্বাচন করেন। তাঁরাই ঠিক করবেন কারা আসবেন। এমনকি সভাপতি পদে কে থাকবে সেটাও ঠিক করবেন কাউন্সিলরা।

 

গত ৩৫ বছর ধরে আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করে আসছেন শেখ হাসিনা। বঙ্গবন্ধু হত্যার ছয় বছর পর ১৯৮১ সালে তাকে সভাপতি নির্বাচন করে আওয়ামী লীগ। এরপর দেশে ফেরেন তিনি। জাতির জনককে হত্যার পর ভাঙন ধরা আওয়ামী লীগকে ঐক্যবদ্ধ করেন বঙ্গবন্ধু কন্যা।

index

১৯৮১ সাল থেকে এখন পর্যন্ত শেখ হাসিনার নেতৃত্ব নিয়ে আওয়ামী লীগে কোনো প্রশ্ন উঠেনি। দলের সম্মেলনে তাকে তাকে চ্যালেঞ্জ জানায়নি অন্য কোনো নেতা। ১৯৯১ সালের জাতীয় নির্বাচনের পর শেখ হাসিনা দলের নেতৃত্ব থেকে সরে দাঁড়ানোর প্রস্তাব দিলেও নেতাকর্মীদের অনুরোধে আবার তাঁর সে প্রস্তাব ফিরিয়ে নেন।

আগামী ২২-২৩ অক্টোবরের জাতীয় সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সভাপতি পদে শেখ হাসিনা ছাড়া অন্য কোনো নাম উচ্চারিত হচ্ছে না। তবে সংবাদ সম্মেলনে শেখ হাসিনা বলেন, ‘কাউন্সিলরা অন্য কাউকে সভাপতি নির্বাচিত করলে আমিই সবচেয়ে বেশি খুশি হবো।’

 

প্রধানমন্ত্রী আবার বলেন, ‘তাঁরা (কাউন্সিলর) যদি আমাকে রিটায়ার্ড করার সুযোগ দেন তাহলে আমি খুশি হতাম।’

প্রধানমন্ত্রী যখন এ বক্তব্য দিচ্ছেলেন তখন সংবাদ সম্মেলনে থাকা এক নেতা বলেন, একি বলছেন? এরপর প্রধানমন্ত্রী আবার বলেন, আমিতো দল ছেড়ে যাচ্ছি না। দলেই থাকবো।’

loading...
%d bloggers like this: