জানা গেল মৃত্যুর আগে কাদের ফোন করেছিলেন সুশান্ত

0

রোববার (১৪ জুন) মুম্বাইয়ের বান্দ্রার নিজের ফ্ল্যাটে গলায় ফাঁস লাগিয়ে মাত্র ৩৪ বছর বয়সে ‘আত্মহত্যা’ করেন বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত। তবে কখন, কোন সময় আর কি কারণে সুশান্ত আত্মহত্যা করেছে সেই তথ্য এখনো মেলেনি। এদিকে ভারতীয় গণমাধ্যম এবিপি নিউজ পুলিশ সূত্রে জানিয়েছে, আত্মহত্যার আগে নিজ বোন এবং এক বন্ধুকে ফোন করেছিলেন সুশান্ত। যাকে কল করা হয়েছিলো তিনি টিভি ধারাবাহিকে সুশান্তের সঙ্গে কাজ করতেন। তার নাম মহেশ শেট্টি।

দিকে ভারতীয় শীর্ষ গণমাধ্যমগুলো তাদের প্রতিবেদনে আরও জানিয়েছে, মুম্বাই ক্রাইম ব্রাঞ্চ এরই মধ্যে সুশান্তের মৃত্যুর ঘটনার তদন্তে দায়িত্ব নিয়েছে। প্রাথমিকভাবে সুশান্তের বাড়ির পরিচারিকা ক্রাইম ব্রাঞ্চকে জানিয়েছে, রোববার সকাল সাড়ে ৬ টায় ঘুম থেকে ওঠেন সুশান্ত। বাইরে আসেন, ফ্ল্যাটে উপস্থিত থাকা বন্ধু ও পরিচারিকারার সঙ্গে স্বাভাবিক কথাবার্তাও বলেন। এরপর সাড়ে ৯ টার সময় জুসের গ্লাস হাতে নিয়ে নিজের ঘরে যান সুশান্ত। তখন তিনি তার বোনকে ফোন করেন। বোনের সাথে কথা বলার পর তিনি মহেশকে ফোন দেন। ইতিমধ্যে মহেশ নিজের স্টেটমেন্ট পুলিশের সামনে দিয়েছে। জুস নিয়ে ঘরে ঢোকার পর থেকে আর সাড়া পাওয়া যায়নি সুশান্তের। দুপুর ১২টা দিকে দরজায় নক ও ফোনে কল দিয়ে সাড়া না পাওয়ায় রুমের দরজা ভাঙার চেষ্টা করা হয়। সেই চেষ্টা ব্যর্থ হলে চাবিওয়ালাকে দিয়ে দরজা খোলার ব্যবস্থা করা হয়। দরজা খোলার পর সুশান্তের ঝুলন্ত দেহ পাওয়া যায়। বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে ভক্তদের মনে প্রশ্ন উঠেছিলো, এটি আত্মহত্যা নাকি হত্যা? যদিও প্রাথমিক ভাবে স্থানীয় পুলিশ ধারণা করছিলো, আত্মহত্যা করেছেন এই অভিনেতা। তবে সুশান্ত আত্মহত্যা করেছেন কিনা সেটা নিশ্চিত প্রয়োজন ছিলো ময়নাতদন্তের রিপোর্ট। রোববার (১৪ জুন) মধ্যরাতে ড. আরএন কুপার মিউনিসিপ্যাল হাসপাতালে ময়নাতদন্ত সম্পন্ন করা হয়েছে সুশান্তের। সেই ময়নাতদন্তের প্রাথমিক রিপোর্ট দেখে মুম্বাই পুলিশ নিশ্চিত করেছে, আত্মহত্যা করেছেন সুশান্ত সিং রাজপুত। তার শরীরে কোন আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি; এছাড়া শরীরে কোনও ড্রাগ রয়েছে কিনা সেটি জেজে হাসপাতালে পরীক্ষা করা হবে।

%d bloggers like this: