ঢাকা ৩০.৯৯°সে ১২ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

দাম্পত্য কলহে শরীরে আগুন লাগিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা

ঢাকায় দাম্পত্য কলহের জেরে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন এক নারী। মাহমুদা সিহাবুন মুবিন মৌ নামে ওই গৃহবধূ শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চিকিৎসাধীন।

রবিবার রাতে মিরপুর ৬ সেকশানের ২ নম্বর সড়কের স্বামী ইরফান হাইউমের ভাড়া বাসার সামনে মৌ শরীরে আগুন লাগিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন বলে জানিয়েছেন মিরপুর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মনজুর রাহি।

মনজুর রাহি বলেন, ‘এই ঘটনায় ইরফান হাইউমকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকে মৌর বাবা মার জিম্মায় ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মৌর বক্তব্য জানারও চেষ্টা করেছে পুলিশ। তিনি নিজের শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগান বলে জানিয়েছেন।’

মৌর খালা হালিমা ইসলাম জানান, ইরফান হাইউম ক্যামেরা পারসন হিসেবে ও তার ভাগ্নি মৌ সংবাদ পাঠিকা হিসেবে একটি বেসরকারি টিভি স্টেশনে কাজ করতেন। সেই সূত্রে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক তৈরি হয়। পরে ২০১৬ সালে তারা বিয়ে করেন।

হালিমা বলেন, ‘পরে আমরা জানতে পারি ইরফান আগেও দুটি বিয়ে করেন। প্রথম স্ত্রীর ঘরে তার এক সন্তান আর দ্বিতীয় স্ত্রীর ঘরে আরও দুটি সন্তান আছে। চাকরি ছাড়ার পর ইরফান আর মৌ অনলাইনে কাপড় বিক্রি করতেন বলে আমরা জানতাম।’

ইরফানের আগের দুই বিয়ে নিয়ে মৌয়ের সঙ্গে স্বামীর দাম্পত্য ঝামেলা চলছিল উল্লেখ করে তিনি বলেন, রবিবার রাতে মৌকে মৌকে দগ্ধ অবস্থায় বার্ন ইন্সটিটিউটে ভর্তি করার সময় ইরফান তার স্ত্রী হিসেবে পরিচয় দেয়।

জানা গেছে, সম্প্রতি স্বামী ইরফানের আগের স্ত্রীকে ডিভোর্স দিতে বলছিল মৌ। এ নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়। তার জেরেই রবিবার রাতে ইরফানের বাসার সামনে রাস্তায় শরীরে কেরোসিন দিয়ে আগুন লাগিয়ে দেয় মৌ।

শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আবাসিক সার্জন ডা. এসএম আইয়ুব হোসেন জানান, মৌর অবস্থা আশঙ্কাজনক। তার শরীরের ৪৬ শতাংশ পুড়ে গেছে। অবস্থা বুঝে তাকে আইসিইউতে পাঠানো লাগতে পারে।

মিরপুর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মনজুর রাহি বলেন, ‘স্বামীর আরও দুটি স্ত্রী থাকায় সংসার করা নিয়ে মৌর সঙ্গে ইরফানের ঝামেলা চলছিল। মৌর বাবা মাও মেয়ের এমন বিয়ে মেনে নিচ্ছেন না। এসব কারণে তিনি নিজের গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন বলে আমরা জানতে পেরেছি।’




আপনার মতামত লিখুন :

এক ক্লিকে বিভাগের খবর