loading...

ঘুড়ি ছাড়াতে গিয়ে ছেলের মর্মান্তিক মৃত্যু, মা হাসপাতালে

0

নিজস্ব প্রতিদেবক: ১৪ বছরের কিশোর শান্ত ইসলাম। প্রতিদিনের মতো বাসার বেলকনিতে দাঁড়িয়ে ঘুড়ি উড়াচ্ছিল। হঠাৎই ঘুড়ি আটকে যায় বিদ্যুতের তারে। বাসায় থাকা লোহার পাইপের সঙ্গে ‘কাঠি বেঁধে’ ঘুড়ি ছাড়ানোর চেষ্টা করে। কিন্তু অসাবধানতাবশত পাইপটি বিদ্যুতের তারের সঙ্গে লেগে যায়। সঙ্গে সঙ্গে মৃত্যু হয় শান্তের।

ছেলেকে বেলকনিতে ঝুলতে দেখে মা এগিয়ে যান। এসময় তিনিও বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে তিনতলা থেকে নিচে পড়ে যান। পরে স্থানীয়রা তাকে দ্রুত উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়। বর্তমানে তিনি শঙ্কামুক্ত বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বুধবার দুপুরে রাজধানীর তুরাগের চন্ডালভোগে এই ঘটনা ঘটে। নিহত শান্তকে এরই মধ্যে দাফন করা হয়েছে।

তুরাগ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শাহিদুর রহমান দুর্নীতি বার্তা কে নিশ্চিত করে বলেন, ‘দুপুরে শান্ত নামের ছেলেটি বাসার তৃতীয় তলার বেলকোনিতে দাঁড়িয়ে ঘুড়ি উড়াচ্ছিল। এসময় ঘুড়িটি গিয়ে পড়ে বিদ্যুৎ লাইনের উপর। সেটা ছাড়াতে, সাত থেকে আট ফিট লম্বা এসএস পাইপের মাথায় হালকা একটা ‘শলা’ বাঁধে। ভেবেছিল যেটা দিয়ে সে ঘুড়িটা টেনে আনবে। কিন্তু পাইটি তারে স্পর্শ করলে সঙ্গে সঙ্গেই তার মৃত্যু হয়। এসময় মা তাকে রক্ষা করতে গেলে তিনিও বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে নিচে পড়ে যান। তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। পরে ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে এসে ছেলেটির মরদেহ উদ্ধার করেছে।’

পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, ‘করোনাভাইরাসের কারণে আশপাশের ভবন থেকে কিংবা এলাকায় ঘুড়ি উড়াতে বারবার নিষেধ করা হয়েছে। এমনকি মসজিদের মাইক থেকেও বলা হয়েছে। কিন্তু কেউ সেটা বন্ধ করছে না। এটা নিয়ে স্থানীয়রা সচেতন হলে এই ধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত মৃত্যু এড়ানো যেত।’

বিকালেই শান্তর মরদেহ দাফন করা হয়েছে বলে জানান এসআই শাহিদুর।

loading...
%d bloggers like this: