গৌরীপুরে যৌন হয়রানীর দায়ে অভিযুক্ত শিক্ষক ফেরদৌসকে চাকুরি থেকে অপসারণের দাবিতে মানববন্ধন

0

নিজস্ব প্রতিনিধি ঃ
ময়মনসিংহের গৌরীপুরে যৌন হয়রানীর দায়ে অভিযুক্ত শিক্ষক ফেরদৌসকে চাকুরি থেকে অপসারণের দাবিতে বিক্ষোভ-মানববন্ধন করেছে স্থানীয় এলাকাবাসী। সোমবার (১৩ মার্চ) বেলা ১১টায় উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের সামনে এ প্রতিবাদ কর্মসূচী পালন করা হয়।

জানা গেছে গৌরীপুর পৌর মডেল সরঃ প্রাঃ বিদ্যালয়ের বিতর্কিত ও শিশু যৌন হয়রানীর অভিযোগে বিভাগীয় মামলায় দন্ডপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক একেএম মাজহারুল আনোয়ার ফেরদৌস। ৫ মার্চ ময়মনসিংহ শহরের একটি হোটেলে আপত্তিকর অবস্থায় ১৪ বছরের জনৈক শিশু কন্যাকে নিয়ে সে জনতার হাতে ধরা পড়ে উত্তম-মধ্যমের শিকার হয়।

এ যৌন কেলেংকারীর ঘটনায় তাকে নিয়ে সর্বমহলে ফের সমালোচনার তুমুল ঝড় ওঠে। ইতোমধ্যে ফেরদৌস মাষ্টারকে চাকুরি থেকে অপসারণের দাবি জানিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট অভিযোগ দায়ের করেছেন স্থানীয় সচেতন মহল। বর্তমানে অভিযোগের প্রেক্ষিতে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় তদন্ত কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

উপজেলা শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা গেছে, বিগত সময়ে স্কুলের দুই শিশু ছাত্রীকে যৌন হয়রানীর অভিযোগে ফেরদৌস মাষ্টারকে সংশ্লিষ্ট বিভাগীয় মামলায় বেতন স্কেল অবনিতকরণ ও তিরস্কার দন্ড প্রদান করে শাস্তিমূলক বদলী করা হয়েছিল। এব্যাপারে অভিযুক্ত শিক্ষক একেএম মাজাহারুল আনোয়ার ফেরদৌস নিজেকে নির্দোশ দাবি করে বলেন তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক।

উপজেলা শিক্ষা অফিসার জুয়েল আশরাফ বলেন ফেরদৌস মাষ্টারের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের নির্দেশ মোতাবেক তদন্ত কার্যক্রম চলমান রয়েছে। তদন্ত শেষে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

গৌরীপুর পৌর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এসএমসি’র সভাপতি ম. নুরুল ইসলাম জানান, বিতর্কিত ওই শিক্ষক যোগদানের পর এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দীর্ঘ দিনের সুনাম ও ঐতিহ্য ক্ষুন্ন হয়েছে। সেসময় স্কুলের আতংকিত শিক্ষার্থী ও অভিভাবকগণ ওই শিক্ষকের যোগদানে বিরোধিতা করে তীব্র প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ জানিয়েও যোগদান ঠেকাতে পারেনি। তিনি ফেরদৌস মাষ্টারের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানান।

%d bloggers like this: