গৌরীপুরে বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসনের মঙ্গল শোভাযাত্রা

0

নিজস্ব প্রতিবেদক ঃ

পহেলা বৈশাখ ও বাংলা নববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে শুক্রবার সকালে মঙ্গল শোভাযাত্রা বের হয়।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মর্জিনা আক্তারের নেতৃতে সকাল ৮.৩০মিনিটে আমতলা থেকে বর্ণীল সাজে সজ্জিত হয়ে¡ ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনায় একটি র‌্যালী শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে পূর্বের স্থানে ফিরে আসে।

মঙ্গল শোভাযাত্রায় অংশ গ্রহন করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ নাজিম উদ্দিন আহমেদ এমপি ,গৌরীপুর পৌরসভার মেয়র সৈয়দ রফিকুল ইসলাম, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রাবেয়া ইসলাম ডলি, উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মাহমুদা সুলতানা, উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ডাঃ হেলাল উদ্দিন আহাম্মদ, সাধারণ সম্পাদক বিধু ভুষণ দাস, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুর রহিম, ডেপুটি কমান্ডার নাজিম উদ্দিন, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার জুয়েল আশরাফ, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন, গৌরীপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি বেগ ফারুক আহাম্মেদ,গৌরীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) মোর্শেদুল হাসান খান, বীরমুক্তিযোদ্ধা, এনজিও কর্মী, সামাজিক-সাংস্কৃতিক কর্মী সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-ছাত্রছাত্রী, সরকারিÑবেসরকারী প্রতিষ্ঠান ও সর্বস্তরের জনগণ ।

র‌্যালীতে অংশ গ্রহণকারী সকলের জন্য ছিলো প্রশাসনের পক্ষ থেকে বাঙ্গালীর সংস্কৃতির চিরায়ত মুখরোচক খাবার। পান্তার সাথে চেঁপা, সূটকী, আলু ভর্তা থেকে শুরু করে বাদ যায়নি শাকÑসবজি। তবে তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে ইলিশ। প্রজনন মৌসূমে খাবারের তালিকা থেকে ইলিশ বাদ দেওয়ার সরকারি এই সিদ্ধান্তে পরিবেশবাদী বিভিন্ন সংগঠনের পাশাপাশি খুশি সাধারণ মানুষও। ভূরিভোজন শেষে আমতলায় সংগীত পরিবেশন করেন বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠন।

এদিকে বিকাল ৩ টায় বরাবরের মতো এবারো বঙ্গবন্ধু চত্ত্বরে বাংলা মঞ্চের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হয় সংগীতানুষ্ঠান। ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ সদস্য এইচ এম খায়রুল বাসারের সঞ্চালনায় ও বাংলা মঞ্চের আহবায়ক শফিকুল ইসলাম মিন্টু সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ নাজিম উদ্দিন আহমেদ এমপি, পৌরসভার সুযোগ্য মেয়র সৈয়দ রফিকুল ইসলাম, বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন কেন্দ্রƒীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক ফেরদৌস আলম, আওয়ামীলীগ নেতা মোর্শেদুজ্জামান সেলিম, নাজনীন আলম প্রমুখ।

এছাড়াও গৌরীপুর পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, নূরুল আমিন খান উচ্চ বিদ্যালয়সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও ক্লাব সংগঠনগুলো আলাদা আলাদা ভাবে বর্ষবরণ অনুষ্ঠান উদযাপন করেছে।

%d bloggers like this: