ঢাকা ২৯.৯৯°সে ১৪ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
শিরোনাম :

বাচ্চা নিয়ে শিয়াল-কুকুরের লড়াই! স্কুলের বারান্দায় অবিবাহিত তরুণীর সন্তান প্রসব!

মাসুদ রানা, ময়মনসিংহ:

ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলায় মাওহা ইউনিয়নের নিজমাওহা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বারান্দায় পুত্র সন্তানের জন্ম দেয় অজ্ঞাত এক অবিবাহিত তরুণী। স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, শনিবার (১৭ ডিসেম্বর ) রাতে সুরিয়া নদীর তীঁরঘেষে উন্মুক্ত স্কুলের বারান্দায় নবজাতকের ওপর শেয়াল হানা দিলে তাড়া করে কুকুর। মধ্যরাতে কুকরের প্রচন্ড ঘেউঘেউ শব্দে গ্রামের লোকজন সেটাকে সাধারণ আচারণ মনে করে নেন। কুকুরের এ আচারণে ঘুম ভেঙ্গে যায় প্রতিবেশী মোঃ লাল মিয়ার। তিনিই ভোরে প্রথম দেখতে পান নবজাতক একটি শিশু ও প্রসূতি মা পাকা ফ্লোরে পড়ে রয়েছে। রক্তে শুকিয়ে পাকাফ্লোর লাল হয়ে গেছে। তার চিৎকারে ছুটে আসেন প্রতিবেশী মৃত সোনাফর আলীর স্ত্রী উকিলের মা। তিনি নবজাতক বাচ্চাটির নাড় কেটে কোলে তুলে নেন।
এদিকে উকিলের মা প্রতিবেককে জানান, নবজাতক শিশুটি ফ্লোরে পড়ে থাকায় শীতে শরীর কালো হয়ে যায়। মায়ের অবস্থাও ভালো না। প্রসূতী মা ও শিশুটিকে তিনি নিজ বাড়িতে নিয়ে এসেছেন। তবে মেয়েটির পরিচয় পাওয়া যায়নি। সামর্থ্যনুযায়ী চিকিৎসারও ব্যবস্থা করেছেন। তবে শিশুটি এখনো সুস্থ্য রয়েছে। এই খবর প্রচার হওয়ার পর থেকে হাজারো মানুষের ভিড় জমে উকিলের মা’র বাড়ীতে। নবজাতক ও প্রসূতীকে এক নজর দেখার জন্য দূর-দূরান্ত থেকেও মানুষ ছুটে আসছে। নিজমাওহা গ্রামের আনোয়ার হোসেন জানান, ধারণা করা হচ্ছে রাতে নবজাতক বাচ্চাটিকে নিতে শিয়াল কয়েকবার হানা দিয়েছিলো কুকুরের তাড়া খেয়ে নিতে পারেনি। আমি নিজেও সকালে বিদ্যালয়ের পিছনে শিয়াল ঘুরতে দেখেছি। হয়তো কুকুর বারান্দায় থাকায় নিতে পারেনি। মহান বিজয় দিবসের মাসে জন্ম নেওয়ায় নিজমাওহা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ নাজমুল ইসলামসহ প্রতিবেশীরা মিলে নবজাতক পুত্র সন্তানটির নাম রেখেছেন ‘বিজয়’। তবে আয়শা আক্তার, জুলেখা আক্তারসহ নারীদের ভাষ্যমতে, নবজাতকটি প্রসব হওয়ায় প্রসূতী মার মুক্তি হয়েছে, জীবনে পেয়েছে স্বস্তি তাই শিশুটির নাম তারা রাখতে চান ‘মুক্তি’। উকিলের মা আরও বলেন, আমার ৪পুত্র, ৩কন্যা সবাইকে বিয়ে দিয়ে নাত-নাতীদের নিয়ে জীবন চলছিল। বিজয় এখন আমার আরেক মানিকধন। এই তরুণীকে এলাকায় কেউ আগে দেখেছেন কি না জানতে চাইলে তারা বলেন, পূর্বে কেউ এ এলাকায় মেয়েটিকে দেখেনি বলে জানান এলাকার লোকজন। প্রসূতী নারী নিজেকে ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা উপজেলার কাঠালজাউ বাজারের পরিচয় দেয়।

শারীরিক অসুস্থ থাকায় এর বেশি কিছু বলতে পারেননি। তবে এই ঠিকানায় মুক্তাগাছার স্থানীয় সাংবাদিকদের মাধ্যমে খবর নিয়েও তরুণীর সঠিক পরিচয় পাওয়া যায়নি। বাচ্চা প্রসব হলেও সে নিজেকে অবিবাহিত বলে দাবী করেন।

ভিক্ষা করার সময় জোরপূর্বক ধর্ষণে অন্তঃস্বত্ত¡া হন বলেও সে জানায়। তবে কবে কোথায় কখন কে করেছে, কিভাবে গৌরীপুর এসেছে এসব প্রশ্নের কোন উত্তর দেয়নি মেয়েটি। গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ দেলোয়ার আহ্ম্মদ বলেন, ঘটনাটি শোনেছি। প্রকৃত পরিচয় ও স্বজনদের খোঁজতে চেষ্টা চলছে।




আপনার মতামত লিখুন :

এক ক্লিকে বিভাগের খবর