ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ জেতাই আমাদের লক্ষ্য: রোচ

0

ক্রীড়া ডেস্ক,
ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজ টেস্ট সিরিজ দিয়ে আগামী বুধবার থেকে আবারো আন্তর্জাতিক ক্রিকেট মাঠে ফিরছে। প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসের কারণে গেল মার্চ মাসে সর্বশেষ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এবারের সিরিজ সকলের কাছেই ঐতিহাসিক হয়ে উঠেছে। দীর্ঘদিন মাঠে ফেরার জন্য মুখিয়ে আছে ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজের খেলোয়াড়রা। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে আসন্ন সিরিজটিকে মর্যাদাপূর্ণ ‘অ্যাশেজের’ সাথে তুলনা করলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের পেসার কেমার রোচ।

ইংল্যান্ডের জনপ্রিয় দৈনিক গার্ডিয়ানকে দেয়া সাক্ষাৎকারে রোচ বলেন, ‘আমাদের জন্য এটি সবচেয়ে বড় সিরিজ। আমাদের কাছে এটা অ্যাশেজের মতোই।’

যে ধরনের সিরিজই হোক না কেন, করোনাভাইরাসের সংক্রমণের মাঝেও আবারো ক্রিকেট মাঠে ফিরছে, এতেই খুশি ক্রিকেটপ্রেমীরা। কিন্তু মনের মধ্যে ভয়-শঙ্কা রয়েছেই। তারপরও জীবাণুমুক্ত পরিবেশ ও রুদ্ধদার স্টেডিয়ামে শুরু হচ্ছে ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ।

নিজেদের মাঠে গেল সিরিজটি ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ২-১ ব্যবধানে জিতেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তাই ট্রফি ধরে রাখার মিশন ক্যারিবীয়দের। রোচ বলেন, ‘সিরিজের ট্রফিটা দেশে নিয়ে যাওয়াই আমাদের প্রধান লক্ষ্য। ইংল্যান্ডে জয় পাওয়া সব সময়ই আনন্দের। তবে এবার বিষয়টা শিরোপা ধরে রাখার। আমরা ট্রফি ধরে রাখার মিশনে এসেছি। টেস্ট সিরিজ জয় হোক বা ড্র হোক, ট্রফি আমাদের কাছেই রাখতে চাই আমরা।’

২০০৯ সালে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক হওয়া রোচ শুরুতেই দ্রুত গতির বোলার হিসেবে পরিচিতি পান । কিন্তু সময় গড়ানোর সাথে-সাথে গতি কমিয়ে, লাইন-লেন্থের উপর বেশি জোড় দিয়েছেন রোচ। পাশাপাশি বোলিংএ বৈচিত্র্যও এনেছেন তিনি। তাই আগের চেয়ে এখন স্বাচ্ছন্দ্যে বোলিং করতে পারছেন বলে মনে করেন রোচ।

তিনি বলেন, ‘সত্যি বলতে আমি আগের মত ১৫০ কি.মি. গতিতে বোলিং করতে চাই। তবে আমার বয়স বাড়ছে। আমার শরীর এখন ২১ বা ২২ বছরের তরুণের মতো সাপোর্ট করছে না। পাশাপাশি আমার অনেকগুলো ইনজুরিও হয়েছে। তাই ইচ্ছা করলেও, আগের মত জোড়ে বল করতে পারব না। তবে এখন ১৩৫ কি.মি. গতিতে আমি স্বাচ্ছন্দ্যে বোধ করছি।

%d bloggers like this: