ঢাকা ২৯.৯°সে ১৩ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সিলেটে বেড়েছে ভোজ্য তেল ও চিনির দাম

সিলেটের বাজারে ঈদকে সামনে রেখে বেড়েছে ভোজ্য তেল ও চিনির দাম দফায় দফায় নিত্যপূণ্যের দাম বৃদ্ধির কারনে ক্রেতা পড়েছেন বিপাকে। সপ্তাহের ব্যবধানে আবারও লিটারে পাঁচ টাকা দাম বেড়েছে সব ধরনের বোতলজাত সয়াবিন তেলের। ঈদকে সামনে রেখে নতুন করে চিনির দামও কিছুটা বেড়েছে। অন্য দিকে বাজারে ঢুকছে নতুন চাল। তাই আটাশ, স্বর্ণাসহ কিছু চালের দাম কিছুটা কমেছে।

একজন মুতির দোকান বিক্রতা বলেন, ‘রূপচাঁদা, তীর, বসুন্ধরা, ফ্রেস প্রত্যেকটা কোম্পানি লিটারে পাঁচ টাকা করে বাড়ায়েছে। তারপর চিনির বস্তাতে বেড়েছে এক সপ্তাহে পঞ্চাশ টাকা। বাজারে এখন ভোক্তাদের স্বস্তির জায়গা সবজির বাজার। কারণ সবজির সরবরাহ যেমন পর্যপ্ত, তেমনি দামও স্থীতিশীল। বাজারে নতুন চাল আসায় দীর্ঘ দিন পরে কমতে শুরু করেছে চালের দাম। সামনের দিনে চালের দাম আরও কমবে বলেই আশা করছেন ব্যবসায়ীরা।

এ বাজারে একজন পাইকারি চাল বিক্রেতা বলেন, আটাশ চাল যেটা আমরা ৪৮ থেকে ৫০ টাকা বিক্রি করতাম। সেটা এখন ৪৫ থেকে ৪৬ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আরেক বিক্রেতা বলেন, আমাদের নতুন ফসল আসতেছে। কৃষকরাও মোটামুটি খুশি। আমরা আশাবাদী চালের দাম কমবে।

এ ছাড়া মুরগির চড়া দাম কিছুটা কমে এসেছে। ব্রয়লারের কেজি বিক্রি হচ্ছে ১৩৫ টাকায় আর পাকিস্তানি বা  সোনালির কেজি এখন ২৬০ টাকা।




আপনার মতামত লিখুন :



অর্থনীতি এর সর্বশেষ

এক ক্লিকে বিভাগের খবর