ঢাকা ২৫.৯°সে ১৩ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

স্বামীর বাড়িতে ঠাঁই না পেয়ে গৃহবধূ র আত্মহত্যার চেষ্টা!

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি :

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে স্বামীর বাড়িতে ঠাঁই না পেয়ে ঘুমের ওষুধ খেয়ে সানী আক্তার (২১) এক গৃহবধূ আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। তাকে উদ্ধার গুরুতর অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে পুলিশ।

রোববার (১০ এপ্রিল) সকালে গফরগাঁও পৌরশহরের শিলাসী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এর আগে শনিবার (১০ এপ্রিল) স্ত্রীর দাবি নিয়ে শামসুল হুদার বাড়িতে যান সানী আক্তার।

স্বামী শামসুল হুদা পৌরশহরের শিলাসী এলাকার হারুন উর রশীদের ছেলে। গৃহবধু সানী আক্তার উপজেলার উস্থি ইউনিয়নের দিয়ারগাঁও গ্রামের প্রবাসী রুহুল আমিন মির্জার মেয়ে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গফরগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অনুকুল সরকার। তিনি বলেন, শামসুল হুদার সঙ্গে সানী আক্তারের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। গত জানুয়ারিতে পরিবারের অসম্মতিতে বিয়ে করেন তারা। বিয়ের পর দুজন ভালুকার মাস্টারবাড়ী এলাকায় ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন। কয়েকদিন আগে সানী আক্তার জানতে পারে স্বামী শামসুল হুদার আরেকটি স্ত্রী ও সন্তান আছে। সানী বিষয়টি জানতে পেরে স্বামীর আগের স্ত্রীর বিষয়ে জানতে চান। পরে শামসুল হুদা এসব নিয়ে ঝগড়া করে মাস্টারবাড়ী এলাকার ভাড়া বাসায় সানীকে একা রেখে চলে যান।
ওসি আরও জানান, শনিবার বিকেলে পৌরশহরের শিলাসী এলাকায় শামসুল হুদার বাড়িতে স্ত্রীর দাবি নিয়ে গেলেও স্বামীর স্বজনরা তাকে বাধা দেয়। পরে একাধিকবার চেষ্টা করেও স্বামীর ঘরে আশ্রয় মেলেনি সানীর। পরে রাত দুইটার দিকে সানী আক্তারকে ওই এলাকার আব্দুল বেপারী গেইটের সামনে ফেলে রেখে যায় তার ভাসুর। সেখানে সানী আক্তার ঘুমের ট্যাবলেট খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। পরে স্থানীয় তাকে উদ্ধার স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। খবর পেয়ে সানীর মা সেখানে আসেন। পরে স্থানীয়রা থানায় খবর দিলে পুলিশ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় সানী আক্তারকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।

তবে এ ঘটনায় এখনও কেউ কোনো অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান ওসি।

 




আপনার মতামত লিখুন :



অপরাধ এর সর্বশেষ

এক ক্লিকে বিভাগের খবর