Durnitibarta.com
ঢাকাশুক্রবার , ১১ নভেম্বর ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

শিক্ষার্থীকে হেনস্থার অভিযোগে শিক্ষক শোকজ, তদন্ত কমিটি গঠন

প্রতিবেদক
বার্তা বিভাগ
নভেম্বর ১১, ২০২২ ৮:৫০ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে শিক্ষকের কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় শিক্ষার্থীকে বিয়ের প্রস্তাব ও হেনস্থা করার অভিযোগ উঠেছে এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষককে কারণ দর্শানোর নোটিশ ও তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী সাত কার্য দিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন ও জবাব দিতে বলা হয়েছে।

জানা যায়, উপজেলার তারুন্দিয়া ইউনিয়নের চরজিথর স্কুল এন্ড কলেজের ভৌত বিজ্ঞানের সহকারী শিক্ষক রাসেল আহমেদ চলতি বছরে প্রতিষ্ঠানটিতে যোগ দান করেন। গত ১৯ অক্টোবর শিক্ষক রাসেলের বিরুদ্ধে দশম শ্রেণি পড়ুয়া এক শিক্ষার্থী অধ্যক্ষের কাছে লিখিত অভিযোগ করেন। অভিযোগে শিক্ষার্থী উল্লেখ করেন, রাসেলের কাছে প্রাইভেট পড়ার সময় শিক্ষার্থীকে বিরক্ত করত। বান্ধবীদের দিয়ে নানান ধরণের কু-প্রস্তাব দিত। এতে শিক্ষার্থী প্রাইভেট বন্ধ করে দিলে বাড়িতে বিয়ের প্রস্তাব পাঠায়। বিয়েতে রাজি না হওয়ায় শ্রেণি কক্ষে শিক্ষার্থীকে গালিগালাজ ও অপমান করেন শিক্ষক রাসেল। শিক্ষকের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত ২৩ অক্টোবর থেকে অভিযুক্ত শিক্ষকের পাঠ কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়া হয়। শুধু এক শিক্ষার্থীই নয়, আরও কয়েক শিক্ষার্থী ও প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের সঙ্গেও বাজে আচরণের অভিযোগ শিক্ষক রাসেলের বিরুদ্ধে।

অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত বুধবার প্রতিষ্ঠান পরিচালনা কমিটি সভা করে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেন। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারকে প্রধান করে তিন সদস্যের কমিটিকে সাত কার্য দিবসের মধ্যে কমিটিকে তদন্ত প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। সভায় অভিযুক্ত শিক্ষক রাসেলকে কেন বিভাগীয় শাস্তির আওতায় আনা হবে না সেই মর্মে শোকজ করা হয়েছে। সাতদিনের মধ্যে তাকেও জবাব দিতে হবে।

এবিষয়ে জানতে চাইলে অভিযুক্ত শিক্ষক রাসেল আহেমদ তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, শিক্ষার্থীর বাড়ি বিয়ের প্রস্তাব পাঠিয়েছিলাম। পরে সে প্রস্তাব না মেয়ে গালিগালাজ করা তাকে শুধু জিজ্ঞাসা করা হয়েছে। আর আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ হওয়ায় স্কুল কর্তৃপক্ষ পাঠ কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়েছে।

চরজিথর স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ মো. সেলিম বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়ে শিক্ষককে কারণ দর্শানোর নোটিশ করা হয়েছে। একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদন ও জবাব পাওয়ার পর পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ বিষয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম জানান, বিষয়টি নিয়ে শিক্ষার্থীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।