অনলাইন প্লাটফর্মে ছয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি রাবিরই শিক্ষার্থী

0

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরাই দেশের ছয়টি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের দায়িত্ব পালন করছেন। বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উপলক্ষে অনলাইন প্লাটফর্মে যুক্ত হন সেই ছয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে ‘ঐতিহ্যে-সাফল্যে-সম্ভাবনায়’ শীর্ষক অনলাইন আলোচনায় দেশের ছয়টি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যরা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে সকলকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান এবং সকলে ঐক্যবদ্ধভাবে স্বনামধন্য এ বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মান বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রুপ অব লিবারেল ডিবের্টাস বাংলাদেশ (গোল্ড বাংলাদেশ)-এর আয়োজনে সংগঠনটির সাবেক সভাপতি কাজী সফিকের সঞ্চালনায় এ আয়োজনে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম আব্দুস সোবহান, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান, পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম রোস্তম আলী, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ছাদেকুল আরেফিন মাতিন, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এএইচএম মোস্তাফিজুর রহমান এবং বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৈয়দ সামসুদ্দিন আহমেদ অংশ নেন।

উল্লেখ্য, ওই ছয়জন উপাচার্যই রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী এবং শিক্ষক ছিলেন। বর্তমানে প্রেষণে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের দায়িত্ব পালন করছেন।

সোমবার সন্ধ্যার ওই আলোচনায় রাবি উপাচার্য প্রফেসর ড. এম আবদুস সোবহান আগামী ৯ জুলাই থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের অনলাইন ক্লাস শুরুর সম্ভাবনার কথা জানান।

তিনি বলেন, ‘ক্লাস টিচিংয়ের বিকল্প অনলাইন না হলেও কোভিড-১৯ এর পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে আমাদেরকে শুরু করতে হবে। শুরুর পর সমস্যা ও সীমাবদ্ধতা বিবেচনায় সেগুলো নিরসনের চেষ্টা করা হবে। এ জন্য একটি টেকনিক্যাল

কমিটিও গঠন করা হয়েছে।’

আলোচনায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সামগ্রিক বিষয়ে রাবি উপাচার্য বলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়কে বিশ্বমানের বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে তুলতে আমাদের সকলের

প্রচেষ্টা জরুরি।

প্রসঙ্গত, ১৯৪৭ সালে দেশভাগের পর পাকিস্তান সরকার দেশের সব কলেজকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত করার প্রক্রিয়া শুরু করে। রাজশাহীতে এসময় স্যাডলার কমিশনের সুপারিশ অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার পক্ষে আন্দোলন শুরু হয়। ১৯৫০ সালের ১৫ নভেম্বর রাজশাহীর বিশিষ্ট ব্যক্তিদের নিয়ে ৬৪ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়। ১৯৫৩ সালের ৬ জুলাই রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করে।

%d bloggers like this: