loading...

নীলফামারীতে পতিতা ও খদ্দের সহ বাড়ির মালিক আটক

0

নীলফামারী জেলা প্রতিনিধি :

নীলফামারীর জলঢাকায় অনৈতিক কাজের সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দুই খদ্দের ও এক পতিতাসহ বাড়ির মালিককে আটক করেছে থানা পুলিশ। পরে তাদের ভ্রাম্যমাণ আদালতে কারাবাস দেয়া হয়েছে। সাজাপ্রাপ্তরা হলেন,বাড়ির মালিক মৃত ইব্রাহিমের ছেলে আব্দুর রাজ্জাকের ৩ মাস এবং খোদ্দের পশ্চিম কাঁঠালী এলাকার নিপেন্দ্রনাথ রায়ের ছেলে বিশ্বজিৎ রায় (২৫), পূর্ব শিমুলবাড়ী গ্রামের বিপেন্দ্রনাথ রায়ের ছেলে দিলীপ চন্দ্র রায় (২৬) ও পতিতা ব্রাহ্মনবাড়িয়া নাছিমনগর ছাতুলপাড়া এলাকার মানিক হোসেনের মেয়ে মোসলেমা বেগম (২৫) এদের প্রত্যেকে ৭ দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করে ভ্রাম্যমাণ আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুজাউদ্দৌলা।

শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলার ডালিয়া রোড মন্থের ডাঙ্গা ব্রিজ সংলগ্ন আব্দুর রাজ্জাকের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। শুধু তাই নয় এ বাড়িতে ছাগলের পাঠা ও এড়েঁ গরু (আড়িয়া) ও ব্যবসা চলে। ছাগলের পাঠা ও এড়েঁ গরু রেহাই পেলেও,রেহাই পায়নি আব্দুর রাজ্জাক ও দুই খদ্দেরসহ এক পতিতা। তাদের সাজা গোনতে হয়েছে। জানা যায়,আব্দুর রাজ্জাক দীর্ঘদিন থেকে এরকম কর্মকান্ড করে আসে। সে বিভিন্ন মাধ্যমে স্কুল কলেজ পড়ুয়া ছাত্রীদের দিয়েও এরকম অসামজিক কাজ করে থাকে।ঘটনার আগের দিন ব্রাহ্মনবাড়িয়া নাছিমনগর থেকে মোসলেমা নামে এক পতিতা মহিলাকে নিজ বাড়িতে নিয়ে আসে।

এরপর উপজেলার বিভিন্ন এলাকার যুবকদের সাথে চুক্তিবদ্ধে এ অসামাজিক কর্মকান্ড চালায়। এ সময় তার বাড়িতে খদ্দেরসহ হাতেনাতে আটক করে থানা পুলিশে খবর দেয় গ্রামবাসী। পুলিশ এসে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটকে খবর দিলে ভ্রাম্যমাণ আদালতে তাদের এ রায় দেয়। এ বিষয়ে জলঢাকা থানা ইনচার্জ মোস্তাফিজুর রহমান নিশ্চিত করে বলেন,অসামাজিক কাজের জন্য তাদের সাজা দেয়া হয়েছে। আগামীকাল নীলফামারী জেলা কারাগারে প্রেরণ করা হবে।

loading...
%d bloggers like this: