loading...

ঝিকরগাছার কুলবাড়ীয়া গ্রামের রাস্তা এখন মানুষের গলার কাটা

0

মোঃ রাসেল ইসলাম,যশোর ব্যুরো প্রধান: যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার কুলবাড়ীয়া গ্রামের দেড় কিলোমিটার কাঁচা রাস্তা পাকা করনের আবেদন করেছে গ্রাম বাসি । দীর্ঘদিন ধরে রাস্তাটি কাঁচা থাকায় বৃষ্টির সময় বেশি ভোগান্তিতে পড়তে হয় এই গ্রামের হাজার হাজার মানুষের। ফলে কাঁচা রাস্তাটি এখন এখানকার মানুষের গলার কাটা হয়ে বেধেছে।

কুলবাড়ীয়া গ্রামটি নাম করন হয়েছে-এখানে অনেক বড় একটি কুলগাছ ছিল । যে গাছের কুল খাওয়ার জন্য দূর দূরান্ত থেকে মানুষ ছুটে আসতো এখানে । এমন একটি কথিত নামানুসারে গ্রামটিকে কুলবাড়ীয়া নাম করন করা হয়।

এই গ্রামে ৪ হাজার ৫শত লোক বাস করে । কুলবাড়ীয়া গ্রামটি বাগআঁচড়া থেকে এক কিলোমিটার ঝিকরগাছার শংকরপুর ইউনিয়ন থেকে আধা কিলোমিটার মিটার দুরে অবস্থিত ।

উপজেলার এই কুলবাড়ীয়া গ্রামের প্রায় সব রাস্তা গুলি পাকা । মাত্র দেড় কিলোমিটার রাস্তার জন্য মানুষ খুব ভোগান্তির মধ্যে রয়েছে । এই গ্রামে হিন্দু, মুসলিম, দাস সহ বিভিন্ন শ্রেনি পেশার মানুষের সমন্বয় শান্তি পূর্ণ বসতি । এই গ্রামে ভোটার সংখ্যা ১৮৬০টি।

এখানে একটি প্রাইমারি (কুলবাড়ীয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়) একটি হাইস্কুল (কুলবাড়ীয়া বি কে এস মাধ্যমিক বিদ্যালয়) একটি হাফিজিয়া মাদ্রাসা এবং ৪ (চার) টি মসজিদ নিয়ে এই সুন্দর শান্তিময় গ্রাম ।

এই গ্রামটিতে বিশিষ্ট সমাজসেবক ডাঃ গোলাম ফারুক সফি (এম বি এস,অর্থ পেডিক)। এই গ্রামে দুইটা ল্যাডি ডাক্তার ও তিনটা পুরুষ ডাক্তার এছাড়া মেডিক্যাল ইন্টারনি করছে আরো মেধাবি ছেলেরা । এই গ্রামে একটি ম্যাজিট্রেট, প্রফেসর, হাইস্কুল শিক্ষক, প্রাইমারি শিক্ষক সহ সরকারী কর্মচারীদের বসবাস ।

ডাঃ গোলাম ফারুক বেশ করেকটি প্রতিষ্ঠানের সভাপতি দায়িত্বে আছেন । এখানে প্রবিণ নেতা মোঃ ওমর আলী দফাদার ,আব্বেস ,রহিম পশারী ,লুকমান ,নাজমুল ছায়াদ ও ওজিয়ার মেম্বারের মতো সব হৃদয়বান ব্যক্তি দ্বারা পরিচালিত এই শান্তিময় গ্রাম ।

বর্ষার সময় স্কুল , মাদ্রাসার ছাত্র ছাত্রীদের যাতায়াতের সময় কাঁদায় পা স্লিপ করে পড়ে তার আর স্কুলে যাওয়া হয় না । একটি মাত্র রাস্তা নিয়ে খুব দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে অত্র এলাকার মানুষের ।

গ্রাম বাসির প্রানের দাবি ঝিকরগাছা উপজেলার কুলবাড়ীয়া গ্রামের দেড় কিলোমিটার কাদাযুক্ত কাঁচা রাস্তাটি পাকা করন বাজেট যেন অতি দ্রুত হয়। তাহলে শুধু বর্ষা মৌসুমে নয় সারাজীবনের জন্য এই গ্রামের মানুষের দুঃখ দুর্দশা কষ্ট লাগব হবে।

এলাকার জনপ্রতিনিধি এবং সচেতন মহলের কাছে উক্ত রাস্তাটি পাকাকরণের জন্য আসু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসী।

loading...
%d bloggers like this: