loading...

সুন্দরগঞ্জে কীটনাশক প্রয়োগে তোষাপাট ক্ষেত বিনষ্ট

0

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ

এ কেমন বর্বরতা, গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় পূর্ব শক্রুতার জের ধরে উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন কীটনাশক প্রয়োগ করে উঠতি তোষাপাট ক্ষেত বিনষ্ট করার অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয়দের নিকট থেকে জানা গেছে, দীর্ঘদিন থেকে উপজেলার চন্ডিপুর ইউনিয়নের উজান বোচাগাড়ী গ্রামের নেজাব উদ্দিন ব্যাপারীর ছেলে ফজলুর রহমানের সাথে জমি-জমা নিয়ে প্রতিবেশি আবুল হোসেনের ছেলে শরিফুল ইসলামের বিরোধ চলে আসছিল। এরই জের ধরে গত রোববার দিবাগত রাতে ফজলুর রহমানের ৩৫ শতক জমির উঠতি তোষাপাট ক্ষেতে উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন কীটনাশক প্রয়োগ করে সম্পন্ন ক্ষেত বিনষ্ঠ করেছে।

ফজলুর রহমানের দাবি শরিফুল তার জমিতে কীটনাশক প্রয়োগ করেছে। স্থানীয় কৃষক সাইফুল ইসলাম জানান, দীঘদিন থেকে ফজলুর রহমান ওই জমি চাষাবাদ করে আসছে। চলতি মৌসুমে ওই জমিতে তোষাপাট চাষ করে ফজলুর। তার ধারণা প্রতিপক্ষরা বিষ প্রয়োগ করে ক্ষেত নষ্ট করেছে। এ ব্যাপারে শরিফুলের সাথে যোগাযোগ করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি। বর্তমানে সে পলাতক রয়েছে। ইউপি চেয়ারম্যান ফুল মিয়া ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, শক্রুতামুলকভাবে এ কাজ করেছে। এটি একটি চরম বর্বরতামুলক কাজ। উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ সৈয়দ রেজা-ই মাহমুদ জানান, তোষাপাট ক্ষেত সরেজমিন পরিদর্শন করে দেখা গেছে, শক্রুতামুলকভাবে কে বা কাহারা উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন কীটনাশক প্রয়োগ করে ফসল বিনষ্ট করেছে। ফসলের শতকরা ৮০ ভাগ পুড়ে গেছে।

পানি দিয়ে স্পে করলে এবং জমিতে সেচ দিলে হয় তো ফসলের কিছুটা উপকার হতে পারে। থানা অফিসার ইনচার্জ এস এম আব্দুস সোবহান জানান, বিষয়টি আমি জেনেছি। মামলার প্রস্তুতি চলছে।

loading...