loading...

টিকে থাকল হায়দ্রাবাদ

0

জয় দিয়ে আইপিএল আসর শেষ করলেন অস্ট্রেলিয়ার ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার। সোমবার রাতে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের বিপক্ষে ৫৬ বলে ৮১ রানের ঝোড়ো ইনিংসই খেলের তিনি। তার ইনিংসের সুবাদে ২১২ রানের বড় পুজি পায় হায়দ্রাবাদ। জবাব দিয়ে নেমে ৪৫ রানে আগেই থেমে যায় না পাঞ্জাবের ইনিংস। এই জয়ে প্লে-অফের দৌড়ে ভালমতোই টিকে রইল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ।

ঘরের মাঠে টস হেরে প্রথম ব্যাট করতে হয়েছিল হায়দরাবাদকে। আর শুরু থেকেই বিধ্বংসী মেজাজে ছিলেন ওয়ার্নার। প্রথম একাদশে সুযোগ পেয়ে তাঁকে যোগ্য সঙ্গত করলেন বাংলার ঋদ্ধিমান সাহা। বঙ্গ ক্রিকেটার ইনিংস ওপেন করতে নেমে ১৩ বলে করলেন ২৮ রান। ঋদ্ধির ইনিংসে ছিল তিনটি চার ও একটি বিশাল ছক্কা। দুই ওপেনারের দাপটে মাত্র ৬.২ ওভারে ৭৮ রান তুলল হায়দরাবাদ। শেষ দিকে চালিয়ে খেলে মণীশ পাণ্ডে করলেন ২৫ বলে ৩৬ রান। ১০ বলে ২০ রান মহম্মদ নবির। ৭ বলে ১৪ অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনের। কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের হয়ে অধিনায়ক রবিচন্দ্রন অশ্বিন ৩০ রানে দুটি ও মহম্মদ শামি ৩৬ রান দিয়ে সমসংখ্যক উইকেট নেন। নির্ধারিত ২০ ওভারে হায়দরাবাদ তোলে ২১২/৬।

মাঠে নেমেই হায়দরাবাদের বিপক্ষেও ছন্দে ছিলেন লোকেশ রাহুল। তবে এ দিন ভক্তদের নিরাশ করেছেন গেইল। মাত্র ৪ রান করে আউট হয়ে যান তিনি। পাঞ্জাবের স্কোরবোর্ডে ২৭ রান যোগ করেন ময়াঙ্ক আগরওয়াল। ২১ রান করে আউট হয়ে যান নিকোলাস পুরন। ডেভিড মিলারও এদিন বেশি রান করতে পারেননি। ১১ রান করে তাঁকে রসিদ খানের বলে আউট হয়ে যেতে হয়। পঞ্জাব দলের ক্যাপ্টেন অশ্বিন মাত্র শূন্য রান করেন। অশ্বিন ফিরে গেলেও পঞ্জাবের ম্যাচ জয়ের আশাটা যেন জিইয়ে রেখেছিলেন লোকেশ রাহুল। কিন্তু কিছুক্ষণের মধ্যেই খলিল আহমেদের বলে কেন উইলিয়ামসনের হাতে ক্যাচ তুলে দেন লোকেশ। আর তারপরেই যেন পঞ্জাবের জয়ের আশা আরও ক্ষীণ হয়ে যায়। ৫৬ বলে ৭৯ রানের ঝড়ঝড়ে একটা ইনিংস উপহার দিয়ে যান কেএল রাহুল। তাঁর ব্যাট থেকে উঠে আসে ৪টি চার এবং ৫টি ছক্কা। রাহুল আউট হতেই আরও দুটি উইকেট হারায় পঞ্জাব। আর শেষমেশ ৮ উইকেট হারিয়ে ১৬৭ রানেই গুটিয়ে যায় পঞ্জাবের ইনিংস।

হায়দরাবাদের হয়ে এদিন প্রতি বলে-বলে চমক দেখান রসিদ খান এবং খলিল আহমেদ। ৪ ওভার বল করে মাত্র ২১ রান দিয়ে ৩টি উইকেট তুলে নেন রসিদ। অন্যদিকে ৪ ওভারে ৪০ রান দিয়ে ৩ উইকেট তুলে নেন খলিল।

১২ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট সহ তালিকায় চার নম্বরে রইল হায়দরাবাদ। শেষ দুই ম্যাচ জিতলেই তাদের প্লে-অফ নিশ্চিত। অন্যদিকে ১২ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে প্লে-অফের দৌড়ে পিছিয়ে পড়ল পঞ্জাব। তালিকায় তারা এখন ছয় নম্বরে।

loading...