loading...

ফুলবাড়ীতে প্রধান শিক্ষকের অবহেলায় পরীক্ষা থেকে বি ত শিক্ষার্থী !

0

বিশ্বনাথ রায়, ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি:

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে প্রধান শিক্ষকের দায়িত্বের অবহেলার কারণে চলতি পি ই সি ই (প্রাইমারী এ্যাডুকেশন কমপ্লিশন এ্যাক্সামিনেশন) পরীক্ষা অংশ গ্রহণ করতে পারলো না তিন শিক্ষার্থী। ফলে স্বামী কর্তৃক প্রচন্ড মারপিটের শিকার হয়েছেন এক শিক্ষার্থীর মা। ঘটনাটি ঘটে উপজেলার সদর ইউনিয়নের চন্দ্রখানা গ্রামে চন্দ্রখানা সরকার পাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ।

জানা গেছে, সারা দেশের নেয় রোববার প্রাথমিক ও গন-শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের অধীণে ফুলবাড়ী উপজেলার ৬টি কেন্দ্রে যথা নিয়মে পরীক্ষা শুরু হয়। কিন্তু উপজেলার সরকার পাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ছিল তার ব্যতিক্রম। সেখানে ৩০ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষা দেওয়ার কথা থাকলেও প্রবেশপত্র পেয়েছে ২৭ জন।

সরেজমিনে দুপুর ১২ টায় চন্দ্রখানা সরকার পাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় গিয়ে বিদ্যালয়টি বন্ধ থাকায় কাউকে পাওয়া যায়নি। পরে খোঁজ নিয়ে তিন শিক্ষার্থীর খোঁজে তার বাড়ীতে গিয়ে দেখা গেল তারা পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করতে না পেরে মন খারাপ করে বসে আছে। ওই তিন শিক্ষার্থীরা হলেন, ওই প্রতিষ্ঠানের নিয়মিত ৫ম শ্রেণীর ছাত্র রিয়াজুল ইসলাম পলাশ ক্লাশ রোল ২৩ , ছাত্রী কুমারী সিমু রানী, ক্লাশ রোল ১২, কুমারী পল্লবী রানী, ক্লাশ রোল ২৭।

অভিভাবক পলি বেগম জানান, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আফরোজা আক্তার প্রিয়ার দায়িত্বের অবহেলার কারণে এই ৩ শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করতে পারে নি। সেখানে আমার ছেলে পলাশও রয়েছে। প্রধান শিক্ষকের ভুলের কারণে ছেলে পরীক্ষা দিতে না পারায় তার বাবা আমাকে মারপিট করেছেন।

সরকার পাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আফরোজা আক্তার প্রিয়া জানান, শিক্ষার্থীরা খুবেই দূর্বল। অভিভাবকরাই বলেছেন এবারের পরীক্ষা না দিতে। ফরম পূরণের সময়ও তাদেরও কোন খোঁজ ছিল না। তাই তারা পরীক্ষা দিতে পারেনি।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা স্বপন কুমার অধিকারী বলেন, যারা পরীক্ষা দিতে পারেনি তাদের জন্য সংশ্লিষ্ট প্রধান শিক্ষকেই দায়ী। তবে অভিভাবকদের খোঁজ খবর রাখা উচিৎ ছিল। কারণ তাদের সন্তান পরীক্ষা দিতে পারলো না।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সুত্রে জানান, এবারের চলতি পি এস সি’তে ৩৫৮৯ ও এবতেদায়ীতে ৪৯৫ জন পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করার কথা থাকলে অনুপুস্থিত পি এস সি’তে ২০৪ ও এবতেদায়ীতে ৮২ জন।

loading...