loading...

নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী আবদুল হাননান খান পূর্বধলায় পুজামন্ডপ পরিদর্শন করেন

0

শিমুল শাখাওয়াতঃ

 

নেত্রকোনা -৫ (পূর্বধলা) আসনে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী হাননান খান আওয়ামী লীগ’র তৃর্ণমূল নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে উপজেলার সকল পুজামন্ডপ পরিদর্শন ও অনুদান প্রদান করেন। পূর্বধলা উপজেলায় সার্বজনীন ও ব্যক্তিগত মিলিয়ে মোট ৫৭ টি পুজামন্ডপে পুজার আয়োজন করা হয়। বাংলাদেশে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব দুর্গোৎসব। পূর্বধলায় অত্যান্ত সুন্দর ও সুশৃঙ্খলভাবে পুজা সম্পন্য হয়। হাননান খান তৃর্ণমূল নেতাকর্মীদের মোটরসাইকেলের বিশাল এক বহর নিয়ে পুজামন্ডপগুলো পরিদর্শন করেন। এসময় হাননান খানের সাথে ছিলেন,
বিশিষ্ট লেখক ও গবেষক আলী আহম্মদ খান আইয়োব, নেত্রকোনা জেলা কৃষকলীগের সদস্য বাবু সুদাংশু সরকার বীকন, হাননান খানের ভাতিজা, যুবসম্প্রদায়ের আইকন,পুর্বধলা উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ন আহবায়ক রাশেদ কুদ্দুস খান সুজন,পূর্বধলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক এড. আব্দুল মান্নান, উপজেলা যুবলীগ সদস্য গোলাম রউফ ফকির নয়ন , ধলামূলগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি আরফান আলী ফকির, সাধারন সম্পাদক কাঞ্চন সরকার,যুগ্ম সম্পাদক শহিদ মিয়া, খলিশাউড় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি জালাল উদ্দিন তাং দুলাল,সাধারণ সম্পাদক আবু তাহের খান, যুবলীগ নেতা মোঃ টুটুল মিয়া, নাদিরুজ্জামান বাবুল,মানুন পাঠান,শওকত তালুকদার, আবদুর রব বাবুল তালুকদার,শহিদ মিয়া, আব্দুল হাসিম,মোঃ শাহারুল,বিশকাকুনী ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা আঃ মোমেন,নারান্দিয়া ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা মোঃ রিয়াদ মিয়া, জারিয়া ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা মোঃ এমদাদ মিয়া, ঘাগড়া ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা মোঃ হিরা মিয়া, ইদ্রিছ মিয়া, ও ছাত্রলীগ নেতা জাকির আহমেদ খান, সাজ্জাত হোসেন খান,মাছুম বিল্লাহ, পূর্বধলা উপজেলা মানবাধিকার কমিশনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুস ছাত্তার প্রমূখ।
সংসদীয় আসন ১৬১, নেত্রকোনা -৫ আসনে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী বীর মুক্তিযোদ্ধা মুহ. আবদুল হাননান খান যিনি তৃর্ণমূল জনপ্রিয়তায় প্রথম স্থান অধিকারী, বলিষ্ঠ নেতৃত্ব,দেশপ্রেমিক একজন নেতা। তিনি বঙ্গবন্ধুর ডাকে দেশকে স্বাধীন করার জন্য যুদ্ধ করেছিলেন। তিঁনি বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলা,জাতীয় চার নেতা হত্যা মামলা,জেল হত্যা মামলা প্রভৃতি মামলা তদন্ত কর্মকর্তা ছিলেন। তিঁনি দেশকে দায়মুক্ত করার জন্য আন্তর্জাতিক অপরাদ ট্রাইব্যুনালের প্রধান তদন্তকারী কর্মকর্তা হিসাবে দ্বায়ীত্বরত অবস্থায় যুদ্ধাপরাধীদের বিচারে মূখ্য ভুমিকা পালন করে যাচ্ছেন। তিনি পূর্বধলার সর্বসাধারণের কাছে গর্বের পাত্র হিসাবে জনগণের মনে ঠাই করে নিয়েছেন। পূর্বধলার মানুষ হাননান খানের মেধা ও দেশপ্রেমের মত গুনাবলীর জন্য উঁনাকে এমপি হিসাবে সংসদে প্রেরণ করতে চাচ্ছেন যাতে পূর্বধলাবাসী তথা বাংলাদেশের মানুষ সুফল ভোগ করতে পারে। পূর্বধলার নারী -পুরুষ, ধনী-গরীব, ধর্ম-বর্ণ, নির্বিশেষে হাননান খানকে নিয়ে গর্বভোধ করেন । আগামী নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে হাননান খান মনোনীত হলে নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত হবে এবং জনগণের প্রত্যাশা পূর্ণ হবে, এমটিই ধ্বণিত হচ্ছে সাড়া পূর্বধলার গ্রামে- গঞ্জে,পাড়ায় মহল্লায়।

loading...