loading...

স্বাধীনতার পর সর্বপ্রথম সর্ববৃহৎ আন্দোলনে পশ্চিমবঙ্গের স্কুল ও মাদ্রাসার করনিকরা

0

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

৮ ই অক্টোবর শিক্ষাঙ্গনে কাজ করবে মাছি মারা কেরানী আর মাহিনা পাবে যতসামান্য। ধন্য এই চেতনা এবং ধন্যবাদ সেই মহামানবকে যার মস্তিষ্ক প্রসুত। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কি করণীক দের নিয়ে ভাবার সময় কি কারোর নেই? সেই ব্রিটিশ আমল থেকে কেরানীদের প্রতি বঞ্চনা ।কবে হবে এর অবসান।কাজ করিয়ে নাও আর পরিশেষে মাহিনা অতি সামান্য।যা দিয়ে না পারবে সুষ্ঠুভাবে বাচতে আর সন্তানদের মানুষ করতে।এখন ত্রিস্তর পাশ করে স্কুলের করণীক হিসেবে যোগ দেয়।তাদের কাজের পরিধি অনেক অনেক গুণ বেশী।

রাজ‌্য জুড়ে সহস্রাধিক সমস‌্যার মধ‌্যে চাপা পড়ে যায় ছাত্র শিক্ষক সমস‌্যার বাইরে শিক্ষাকর্মীদের সমস‌্যা। শিক্ষার এক গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ হওয়া সত্ত্বেও মর্যাদা ও সুযোগ দুটোতেই ঘাটতি রয়েছে তাদের। রয়েছে সুবিধার অভাব।

তাদের সুযোগ সুবিধার দাবীতে লড়াইয়ের প্রস্তুতি নিতে মাদ্রাসা ও স্কুল শিক্ষাকর্মীদের নিয়ে জেলায় জেলায় সংগঠনের ডানা বিস্তার করেছে ওয়েস্ট বেঙ্গল স্কুল অ‌্যান্ড মাদ্রাসা ক্লার্ক অ্যাসোসিয়েশন।

শিক্ষাকর্মীদের প্রয়োজনীয়তা সত্ত্বেও বুক জমা বঞ্চনার পাহাড় নিয়ে তাদের অবিরত দিনগুজরান। শিক্ষক-শিক্ষিকার বাইরে টুকিটাকি ছাত্রসমস‌্যা ছাড়া অন‌্যান‌্য সমস‌্যা খুব বেশি আসেওনা প্রচারের আলোকে।

অনালোকিতই রয়ে যায় শিক্ষাকর্মীদের বঞ্চনার চিত্রটি। নেই বিএড বা সমতুল কোনো ডিগ্রি করবার সুযোগ। নেই বেতন বৃদ্ধির সুযোগ। তাই তাদের নিজস্ব দাবীর ভিত্তিতে লড়াইয়ে প্রস্তুতি স্কুল ও মাদ্রাসা শিক্ষাকর্মীরা গড়ে তুলেছেন ওয়েস্ট বেঙ্গল স্কুল এন্ড মাদ্রাসা ক্লার্ক অ্যাসোসিয়েশন নামে এক অরাজনৈতিক সংগঠন।

কোনো রাজনৈতিক দাবীদাওয়া নয়, কেবলই নিজস্ব দাবীদাওয়া ভিত্তিতে আন্দোলন, চাওয়া পাওয়ার নিরীখে সরকারের দৃষ্টি আকর্ষনে গড়ে উঠেছে  ওয়েস্ট বেঙ্গল স্কুল এন্ড মাদ্রাসা ক্লার্ক অ্যাসোসিয়েশন। দিনভর গাধার খাটুনির পর যৎসামান‌্য মাইনে, প্রয়োজনের তুলনা সুযোগ সুবিধা সর্বাত্মক ঘাটতির অভিযোগ শিক্ষাকর্মীদের।

অভিযোগ জানাতে তারা পা মেলাচ্ছন মিছিলে। চাকরির মেয়াদ পাঁচ বছরের পর ইউডিসি স্কেলে পদোন্নতি, ক্লার্কদের জেনারেল ট্রান্সফার চালু, অতিরিক্ত কাজের এক্সট্রা অ‌্যালাউয়েন্স, ক্লার্কদের শিক্ষাগত যোগ‌্যতা বৃদ্ধি ও মানোন্নয়ন সহ দশ দফা দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল ও ডেপুটেশনের ডাক দিয়েছে

ওয়েস্ট বেঙ্গল স্কুল এন্ড মাদ্রাসা ক্লার্ক অ্যাসোসিয়েশন। চলছে জেলা গত প্রস্তুতি। কোচবিহার থেকে সুন্দরবন পর্যন্ত সর্বত্র ক্লার্কবন্ধুরা একত্রিত হয়ে অনশন, অবস্থান করছেন । সব জেলায় সংগঠন বিস্তারের কাজ শেষে এখন মিছিলের প্রস্তুতির পালা সেরে ফেলছেন সংগঠনের নেতা ও রাজ্য সম্পাদক তন্ময় সরকার জানাচ্ছেন রাজ্যের প্রতিটি জেলায় অবস্থান ,বিক্ষোভ , ধর্না,মিছিল ও জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শকের নিকট দশ দফা দাবির ভিত্তিতে ডেপুটেশান জমা দিচ্ছেন তারা । আট তারিখ শিক্ষামন্ত্রীর প্রধান সচিবের নিকট ডেপুটেশন দিয়েছেন তারা । এছাড়াও তেইশটি জেলার শিক্ষাদপ্তরে তারা তাদের দাবিপত্র জমা দিচ্ছেন । জানাবেন বঞ্চনার চিত্রলিপি। রাজ্য কমিটি সদস্য এবং মুর্শিদাবাদ জেলার ডিস্ট্রিক্ট কোঅর্ডিনেটার বিশ্বজিত মিত্র জানাচ্ছেন দাবি পূরন না হওয়া পর্যন্ত তাদের এই আন্দোলন চলবে ।

loading...