loading...

ফুলবাড়ীতে প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্নের আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় ৫শত ৬৫ টি ঘর নির্মাণ কাজ শেষ

0

বিশ্বনাথ রায়, ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) থেকে ঃ

প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্নের আশ্রয়ণ-২ প্রকল্প “যার একখন্ড জমি আছে ঘর নেই, তার জমিতে গৃহ নির্মাণ” উপ-খাতের আওতায় কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে ৫শত ৬৫ টি ঘর নির্মাণ করে দেয়া হয়েছে।

গত বুধবার সন্ধায় সরেজমিনে কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক মোছাঃ সুলতানা পারভীন উপজেলার সীমান্তবর্তী তালুক শিমুলবাড়ীর বালাটারী গ্রামের গৃহহীন বিধবা আমেনা বেগম(৫৮) ও নজরুলের আশ্রয়ণ-২ প্রকল্প’র নির্মাণকৃত ঘর পরিদর্শন করে জানান, এটা বর্তমান সরকারের মহৎ কাজ।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ইতিমধ্যেই বলে দিয়েছেন “বাংলাদেশের একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না” তাই আপনারা যতœ সহকারে এর সংরক্ষণ করবেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার দেবেন্দ্র নাথ উরাঁও জানান, দারিদ্র্য বিমোচনে সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগের মধ্যে এই প্রকল্পটি অন্যতম। যার এতদিন মাথা গোঁজার ঠাঁই ছিল না তিনি এখন সুন্দর পরিচ্ছন্ন একটি ঘরে স্ত্রী-সন্তান নিয়ে বসবাস করবেন। ।

ঘর পেয়ে বেজায় খুশি চন্দ্রখানা গ্রামের দিন মজুর নাজমা বেগম নিজের কোন টাকাও নেই পয়সাও নেই। অথচ এক লাখ টাকার ঘর! স্বামী পখি মামুদের সঙ্গে আগামীর পথচলা যেন ভালোই হয় তাই তার ভাবনা। তিনি জানান, আমি গৃহহীন ও ছিন্নমূল মাথা গোঁজার ঠাঁই করে দিয়েছেন শেখের বেটি শেখ হাসিনা এটাই আমার অনেক বড় প্রাপ্তি।

এক লাখ টাকার মধ্যে ঘর নির্মাণ করে দেওয়া হচ্ছে এসব হত-দরিদ্র গৃহহীন ছিন্নমূল মানুষের। এছাড়াও জানাগেছে, আরও ৪শটি ঘর নির্মাণের বরাদ্দ চেয়ে ইউএনও’র কার্যালয় চিঠি পাঠানো হয়েছে। উপজেলার ৬ টি ইউনিয়নে পর্যায়ক্রমে গৃহনির্মাণের এই প্রকল্প বাস্তবায়িত হচ্ছে।

উপজেলা ত্রাণ ও পূনর্বাসন কর্মকর্তা সবুজ কুমার গুপ্ত জানান, ইউএনও স্যারসহ প্রতিটি ইউনিয়নের চেয়ারম্যানদের সঙ্গে নিয়ে আমরা ব্যক্তি নির্বাচন করেছি।

যাদের থাকার ঘর নেই,কুড়ে ঘরে বাস করেন একখন্ড জমি আছে এরকম দরিদ্র মানুষ নির্বাচন করে সরকারি বরাদ্দের এক লাখ টাকার মধ্যে একটি ঘর ও একটি বাথরুম নির্মাণ করে দেওয়া হচ্ছে।

loading...