loading...

কেমন হবে রোমান্টিক রাতের ‘বিশেষ’ আয়োজন?

0

বিবাহিত দম্পতিদের যৌথ জীবনের নানা অধ্যায় আছে। কখনো উত্থান, কখনো পতন। কখনো রাতগুলো খুব সাদামাটা আর একঘেয়ে, কখনো রোমান্টিকতায় ভরপুর। সঙ্গীর সাথে সংসার যেমন জরুরী, তেমনই জরুরী কিন্তু রোমান্টিক রাতগুলোর জন্যে একটু বিশেষ আয়োজন। অনেক নারীই অভিযোগ করেন না যে বিয়ের পর দাম্পত্য যেন আর আগের মত নেই। বরের মাঝে খুঁজে পাওয়া যায় না সেই আগের প্রেম ও আকর্ষণ। অভিযোগ বাদ দিয়ে একটু নিজের দিকে দেখুন তো! আপনিও কি আছেন আগের মত?

রোজকার সম্পর্কে আকর্ষণ ধরে রাখতে দুজনের তরফ থেকেই চাই চেষ্টা। বরং দাম্পত্য যত পুরাতন হবে, বাড়তে হবে সেই চেষ্টার পরিমাণ। নিত্যনতুন পোশাক, সাজ কিংবা প্রেমের খেলাতেই অটুট থাকে দাম্পত্যের আকর্ষণ। প্রিয় মানুষটি আজকাল আর আপনার প্রতি আগ্রহ দেখান না, আকর্ষণ বোধ করেন না একটুও- সমস্যা যদি এই হয়ে থাকে, তাহলে আজকের টিপসগুলো আপনার জন্যেই। কিছু ছোট ছোট পরিবর্তনেই আপনার শোবার ঘরে ফিরে আসতে পারে সেই আগের মত রোমান্টিকতা।

সাজ- পোশাকে গুরুত্ব দিন

সপ্তাহের প্রতিদিন যে পোশাকে তিনি আপনাকে দেখতে পান, সেই একই পোশাক অন্তরঙ্গ সম্পর্কেও রোমান্টিক করে তুলবে- এমনটা ভাবা কিন্তু খুবই অন্যায়।রোমান্টিক রাতগুলোর জন্যে তোলা থাক আলাদা পোশাক। হতে পারে আকর্ষণীয় নাইট গাউন কিংবা তার পছন্দের কোন পোশাক। একই সাথে খুব হালকা হলেও সাজসজ্জা করুন। ব্যবহার করুন দারুণ সুগন্ধী। বিশেষ মুহূর্তগুলো হয়ে উঠবে অনেক বেশি আনন্দের। তিনি আপনাকে দেখবেন নতুন চোখে।

সমস্ত ব্যস্ততা সেরে রাখুন

কাজের চাপ কিংবা তাড়াহুড়া মাথায় নিয়ে আর যাই হোক, রোমান্টিক মুহূর্ত উপভোগ করা যায় না। সঙ্গীর জন্যে আনন্দময় মুহূর্ত কাটাতে চাইলে সমস্ত কাজ সেরে রাখুন। অফিস বা সংসারের কাজ হতে শুরু করে বাচ্চাদের কাজ পর্যন্ত, পরের দিন সকালের অগ্রিম প্রস্তুতি ইত্যাদি সবকিছু সেরে একদম টেনশন মুক্ত হয়ে যান।

পরিবেশটাও জরুরী

বাড়িতে অনেক মানুষ আর শোরগোল থাকলে কিন্তু শিকেয় ওঠে রোমান্টিকতা। তাই সঙ্গীর জন্য বিশেষ কোন আয়োজন করতে চাইলে এই ব্যাপারটি মাথায় রাখুন। যেদিন বাড়িতে মানুষ কম, সেই দিনগুলো দারুণ। বাচ্চাদের ঘুম পারিয়ে দিন। অল্প আলো, হালকা সংগীত, মিষ্টি সুগন্ধ, হালকা পানীয় ইত্যাদি সবই মুড তৈরি করতে সাহায্য করে।

খুব ভারী খাওয়া-দাওয়া পরিহার করুন

বিশেষ রাতগুলোতে একটু ভিন্ন রকম খাবারের আয়োজন হোক। রোজকার আয়োজনের বাইরে একটু বিশেষ কিছু। কিন্তু তারমানে এই নয় যে খুব করে মাংস দিয়ে কাচ্চি রান্না করলেন। ভারী খাওয়ার পর অস্বস্তি, গ্যাস হওয়া, এসিডিটি, ক্লান্তিতে ঘুম পাওয়া ইত্যাদি খুবই সাধারণ সমস্যা। তাই বিশেষ আয়োজনের সময়ে খাবারও হোক বিশেষ। হালকা তেল মশলার। বিদেশি খাবারও চেষ্টা করে দেখতে পারেন। দুজনে রোমান্টিক পরিবেশে একসাথে ডিনার করতে একটুও খারাপ লাগবে না।

ছুটির রাতগুলোকে বেছে নিন

দুজনে বিশেষ কিছু রোমান্টিক সময় কাটাতে চাইলে অফিসের দিনগুলো বেছে নেয়া মোটেও বুদ্ধিমানের কাজ নয়। কারণ অফিসের স্ট্রেস, ক্লান্তি পুরো সপ্তাহ জুড়েই আমাদের সাথে থাকে। সঙ্গীর আকর্ষণ ফিরিয়ে আনতে চাইলে বিশেষ রাতগুলোকে করে তুলুন মোহময়। আর সেটা তখনই সম্ভব যখন দুজনেই থাকবেন স্ট্রেস ফ্রি। তাই বেছে নিন সপ্তাহ শেষের ছুটির দিনগুলোকে। কিছুক্ষণের জন্য হারিয়ে যান রোমান্টিকতায়।

ভালো থাকুক দাম্পত্য। হয়ে উঠুক মধুর হতে মধুরতম। শুভকামনা।

loading...