loading...

১২ মাস ধরে হালুয়াঘাট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কিশোরি

0

ওমর ফারুক সুমন, হালুয়াঘাট (ময়মনসিংহ) থেকেঃ

অভাবের সংসার। বাবা হত দরিদ্র। শারিরীক অসুস্থ্যতা নিয়ে ভর্তি হন হাসপাতালে। তারপরেই ঘটে ঘটনা প্রবাহ। এভাবেই একটানা ১৩ মাস ধরে হালুয়াঘাট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অবস্থান করছেন উপজেলার মনিকুড়া গ্রামের দিনমজুর মিরাজ আলীর কন্যা আঞ্জু নামের ১৬ বছরের এক কিশোরি।

প্রায় ৪ মাস হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকার পর গত ১৯ নভেম্বর হাসপাতালে পুত্র সন্তান প্রসব করেন আঞ্জু। সন্তান প্রসবের দিনটি ছিলো রবিবার রাত আনুমানিক দেড়টা। সব মিলিয়ে ১২ মাসের উপরে চলছে আঞ্জুর হাসপাতাল কেন্দ্রিক জীবন। বাচ্চাটির বয়স এখন ৬ মাস ১৪ দিন।

মা আদর করে সন্তানের নাম রেখেছেন আসিক। আঞ্জু’র বিষয়ে হালুয়াঘাট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা এম এ কাদের বলেন, মেয়েটিকে খোঁজ খবর নেয়ার মতো কেউ নেই।

সেও হাসপাতাল ছেঁড়ে যেতে চাচ্ছেনা। আমরাও মানবিক কারনে তার জন্যে খাবার ও ঔষধের ব্যাবস্থা করে যাচ্ছি। আঞ্জু যেতে চাইলে যে কোন সময় চলে যেতে পারে। বর্তমানে আঞ্জু সুস্থ্য রয়েছে। বাচ্চাটিও সুস্থ্য আছে বলে জানান।

রবিবারদিন এক সাক্ষাৎকারে আঞ্জু বলেন, তার পিতা মাঝে মাঝে খবর নেন। কিন্তু হাসপাতালেই সে ভালো আছেন। আজ সকালে কি খেতে দিয়েছে এমন প্রশ্নে আঞ্জু বলেন, সকালে একটি রুটি, ১ টি ডিম ও ১ টি কলা খেতে দিয়েছে হাসপাতাল থেকে।

দুপুরে ভাত আর পাংগাস মাছের তরকারি। তাতেই সে খুশি। কিশোরির সাবেক বাড়ি হালুয়াঘাট উপজেলার আমতৈল গ্রামে। অন্তঃসত্ত্বা হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন আজ থেকে ১ বছর পূর্বে।

পরে হাসপাতালেই তার বাচ্চা ভুমিষ্ঠ হয়। মানবিক কারনে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিশেষ বিবেচনায় ১২ মাস চলছে আঞ্জু ময়নার হাসপাতাল কেন্দ্রিক জীবন।

loading...
error: Content is protected !!