loading...

হালুয়াঘাটে বিয়ের আগেই বর পাঁকড়াও, মুচলেকা দিয়ে ছাঁড়

0

হালুয়াঘাট (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধিঃ

হালুয়াঘাট উপজেলার রঘূনাথপুর এলাকায় বিয়ের আগেই হবু শশুর বাড়িতে এসে ৮ম শ্রেণীর এক শিক্ষার্থীর সাথে হানিমুন করার অভিযোগে উজ্জ্বল মল্লিক (৩৫) নামে এক বখাটেকে রাতভর অবরুদ্ধ করে রাখে স্থানীয় জনতা।

এ নিয়ে গত পাঁচদিন যাবৎ চলছে এলাকায় আলোচনার ঝড়। ঘটনাটি গত ১৯ মে শনিবার দিবাগত রাতে ঘটলেও এখনো তার উত্তাপ বিরাজ করছে ঐ রঘূনাথপুর এলাকায়।

স্থানীয়দের পক্ষে প্রতিবেশী যুবক নয়ন বলেন, উজ্জ্বল কয়েকমাস যাবৎ বিয়ের ফাঁদ পেতে এই মেয়ের বাড়িতে এসে রাত্রিযাপন করে। এ নিয়ে একাধিকবার তাকে নিষেধ করা সত্ত্বেও সে মাঝে মাঝেই ঐ মেয়ের বাড়িতে আসা যাওয়া করে।

ইতিপূর্বে রাত্রিবেলায় একদিন উজ্জ্বল মল্লিকের হোন্ডা পানিতেও ফেলে দিয়েছিল বলে তারা জানান। এরপরেও আসা যাওয়া বন্ধ না হওয়াই ঐ দিন রাতে তাকে মেয়ের বাড়িতে স্থানীয় নয়ন, জামান, জোটন, এনামুল, মিঠুনসহ কতিপয় যুবক মিলে তাকে অবরুদ্ধ করে।

পরে এলাকার শতাধিক উৎসুক জনতা এসে ভিঁড় করে ঐ বাড়িতে। পরে রবিবার সকালে মুচলেকা দিয়ে ছাঁড় পায় উজ্জ্বল মল্লিক। এ বিষয়ে উজ্জ্বল মল্লিকের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার সাথে ঐ মেয়ের বিয়ের কথাবার্তা চলছে।

আমি বেড়াতে এসেছিলাম। অন্য কোন উদ্দেশ্য তার ছিলোনা। মেয়ের পিতা বলেন, আমার মেয়ের সাথে উজ্জলের বিয়ের কথাবার্তা চলছে। এ নিয়েই আলোচনা করার জন্যে উজ্জ্বল এসেছিলো। স্থানীয়দের অভিযোগ, মেয়ের বিয়ের বয়স হয়নি।

উজ্জ্বল মিথ্যে বিয়ের ফাঁদ পেতে নিজের সুবিধা নিতে চেয়েছিলো। তার কুমতলব রয়েছে। তাই তাকে গৃহবন্ধী করে। উজ্জল মুন্সিগঞ্জ জেলার লৌহজং উপজেলার সিংড়াইল গ্রামের কৃষ্ণ মল্লিকের পুত্র।

সে বর্তমানে হালুয়াঘাটের ১২নং স্বদেশী ইউনিয়নের মাছাইল গ্রামে তার ভগ্নিপতি বাদল সরকারের গরুর খামার দেখাশোনা করে।

loading...