loading...

নড়াইলে চলন্তিকা যুব সোসাইটির নির্বাহী পরিচালক গ্রেফতার

0
কাজী আতিকুর রহমান-নড়াইলঃ
নড়াইলের কালিয়ায় ‘চলন্তিকা যুব সোসাইটি’র নির্বাহী পরিচালক সরোয়ার হোসাইনকে (৪৫) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার (২১ মে) দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
এর আগে খুলনার দৌলতপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। সরোয়ার খুলনার শিপইয়ার্ড এলাকার সোলাইমান সরদারের ছেলে। মামলায় সরোয়ার হোসাইন ও চলন্তিকা যুব সোসাইটির চেয়ারম্যান খবিরুজ্জামানসহ সাতজনকে আসামি করা হয়েছে। অন্য আসামিরা পলাতক রয়েছে।
কালিয়া থানা সূত্রে জানা যায়, বড় কালিয়ার শ্যামল কুমার ঘোষ নামে এক ক্ষতিগ্রস্ত গ্রাহক সম্প্রতি নড়াইলের একটি আদালতে মামলা দায়ের করেন। মামলাটি গত ১৯ মে কালিয়া থানায় অন্তর্ভূক্ত করা হয়।
এ মামলায় প্রেক্ষিতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে সরোয়ার হোসাইনকে খুলনা থেকে গ্রেফতার সোমবার সকালে কালিয়া থানায় নিয়ে আসে। এর আগে গত ৯ এপ্রিল কালিয়া উপজেলার জোকা গ্রামের ক্ষতিগ্রস্থ গ্রাহক সাজ্জাদুর রহমান বাদী হয়ে খবিরুজ্জামানসহ আটজনের বিরুদ্ধে কালিয়া থানায় আরো একটি মামলা দায়ের করেন।
এছাড়া অজ্ঞাতনামা ২০ থেকে ২৫ জনকে আসামি করা হয়। এ মামলায় পুলিশ চলন্তিকা যুব সোসাইটির ছয় কর্মকর্তাকে গ্রেফতার করে। কালিয়া থানার ওসি শেখ শমসের আলী বলেন, সংস্থার চেয়ারম্যান খবিরুজ্জামানকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।
মামলার বিবরণে ও ক্ষতিগ্রস্থ গ্রাহক সূত্রে জানা যায়, চলন্তিকা যুব সোসাইটি নামের বেসরকারি সংস্থাটি ২০০৪ সালে কালিয়া উপজেলায় কাজ শুরু করে। এর প্রধান কার্যালয় খুলনায় বলে জানা গেছে।
গ্রাহককে ছয় বছরে দ্বিগুণ এবং দশ বছরে তিনগুণ মুনাফা দেয়ার ঘোষণা দিয়ে ব্যাপক কার্যক্রম শুরু করে। কালিয়া উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় বিভিন্ন মেয়াদী আমানত, মাসিক আমানত সংগ্রহ ও ঋণদান কর্মসূচীর কাজ শুরু করে।
অধিক মুনাফার প্রলোভন দিয়ে ২০১৭ সাল পর্যন্ত কালিয়ার বিভিন্ন এলাকার আট হাজার গ্রাহকের প্রায় ৫০ কোটি টাকা হাতিয়ে নেয় এনজিওটি। সুযোগ বুঝে গত ৩ এপ্রিল চলন্তিকা যুব সোসাইটির কর্মকর্তারা কালিয়া ছেড়ে পালিয়ে যান।
loading...