loading...

নেত্রকোণায় ধর্ষনের পর নারীর গোপনাঙ্গ কর্তন

0

নেত্রকোনা জেলা প্রতিনিধিঃ

নেত্রকোনার কেন্দুয়ার উপজেলার পাইকুড়া ইউনিয়নের সুত্রাকান্দা গ্রামে এক গৃহবধূকে ধর্ষণ করা হয়েছে। ধর্ষণের পর ব্লেড দিয়ে ওই গৃহবধূর গোপনাঙ্গ কেটে ফেলেছে ধর্ষক।এ ঘটনায় কেন্দুয়া থানায় রোববার বিকেলে মামলা করেছেন নির্যাতিত গৃহবধূর স্বামী মো. কাঞ্চন মিয়া। ঘটনায় সঙ্গে জড়িত কাউকে এখনো গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।মামলায় অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, কেন্দুয়া উপজেলার সুত্রাকান্দা গ্রামের মৌজ আলীর ছেলে নাজমুল (২৪) দীর্ঘদিন ধরে একই গ্রামের কাঞ্চন মিয়ার স্ত্রীকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল।কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় শনিবার সন্ধ্যায় ঘরের পেছনে কাঞ্চনের স্ত্রী বাথরুমে গেলে তাকে মুখ চেপে ধরে পাশের জঙ্গলে নিয়ে ধর্ষণ করে নাজমুল।ধর্ষণের পর ব্লেড দিয়ে গৃহবধূর গোপনাঙ্গ কেটে পালিয়ে যায় ধর্ষক। এ সময় গৃহবধূর চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে। পরে মুমূর্ষু অবস্থায় গৃহবধূকে কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।মামলার বাদী ও গৃহবধূর স্বামী মো. কাঞ্চন মিয়া বলেন, আমি গরিব মানুষ। ঢাকার রামপুরায় শ্রমিকের কাজ করে ৩ ছেলে-মেয়ের সংসার চালাই। কাজের জন্য বেশি সময় আমাকে ঢাকায় থাকতে হয়।এই সুযোগে নাজমুল বিভিন্ন সময় আমার স্ত্রীকে কুপ্রস্তাব দিতো। শনিবার আমার স্ত্রীকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ করে তার গোপনাঙ্গ কেটে দেয় নাজমুল। এমন জঘন্য ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক বিচার চাই আমি।কেন্দুয়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইমারত হোসেন গাজী বলেন, আমরা মামলা নিয়েছি। বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে দেখছি। আসামিকে ধরতে পুলিশি অভিযান শুরু হয়েছে।নেত্রকোনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (তদন্ত) মুহাম্মদ শাহজাহান মিয়া বলেন, এটি একটি স্পর্শকাতর ঘটনা। পুলিশ গুরুত্ব দিয়ে সঠিকভাবে তদন্ত করে আসামির বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

loading...
error: Content is protected !!