loading...

উত্তরাঞ্চল রেকর্ড পরিমান শীতে কাপছে মানুষঃ জনজীবনে ব্যাপক প্রভাব

0
রাশেদুল ইসলাম আপেল, নীলফামারী জেলাঃ

গত ০৪ দিন ধরে শীত, কুয়াশা আর উত্তরের হিমেল বাতাসে ডোমার উপজেলার মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ব্যাহত হচ্ছে। সন্ধ্যা থেকে শুরু হয় কুয়াশা থাকে পরদিন দুপুর পর্যন্ত; সঙ্গে বাড়তে থাকে শীতের প্রকোপ। আর শেষ রাতে হিমেল বাতাস। সারাদিন সূর্যের দেখা মেলেনা। শীতের প্রকোপ বাড়ায় প্রবীণ ও শিশুদের দুর্ভোগ বেড়েছে।

নীলফামারী জেলার আঞ্চলিক আবহাওয়া অফিস জানায়, সোমবার নীলফামারী জেলার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

ডোমারে গত কয়েকদিন ধরে শীতের তীব্রতা বেড়েছে। রাতে তাপমাত্রা কমতে শুরু করায় আর উত্তরের হিমেল বাতাস শীতের তীব্রতা বাড়িয়ে দিয়েছে হিমালয়ের পাদদেশের এই উপজেলায়। দুর্ভোগে পড়েছেন এই অঞ্চলের মানুষ। ছিন্নমূল ও অসহায় মানুষের পাশাপাশি কর্মজীবীরাও পড়েছেন বিপাকে। দরিদ্র ও অসহায় মানুষরা শীতবস্ত্র কিনতে ভিড় করছেন উপজেলার রেলঘুন্টি পারের পুরানো কাপড়ের মার্কেটে।

এদিকে শিশুরা ঠাণ্ডায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে।, এ সময় শিশুদের বিশেষ নজর দেয়ার জন্য পরামর্শ এই শিশু বিশেষজ্ঞের ।

আঞ্চলিক আবহাওয়া অফিস জানায়, এখন শীতের প্রকোপ ধীরে ধীরে বাড়তে থাকবে।
উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন এবং ০১ টি পৌরসভার ৩ লাখ ৫০ হাজার মানুষের মধ্যে দরিদ্র ও ছিন্নমূলদের জন্য উপজেলা প্রশাসনের কাছে কম্বল মজুদ রাখার জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

loading...